হাবিপ্রবির অনলাইন পরীক্ষা যেভাবে হবে

  • 19 July
  • 08:05 PM

আব্দুল্লাহ আল মুবাশ্বির, হাবিপ্রবি প্রতিনিধি 19 July, 21

দেশে করোনা পরিস্থিতির অবনতি ঘটায় এবং গত ২১ জুন দিনাজপুর সদর উপজেলা লকডাউন ঘোষিত হবার পর সশরীরে পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) কর্তৃপক্ষ। এরপর ১২ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৭ তম একাডেমিক কাউন্সিলে স্থগিত পরীক্ষাগুলো অনলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় হাবিপ্রবি প্রশাসন।

অনলাইনে কোন পদ্ধতি অনুসরণ করে পরীক্ষা নেওয়া হবে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা সোমবার (১৯ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সূত্র নিশ্চিত করেছে বিভিন্ন অনুষদদের ডিনসহ ১৩ সদস্য বিশিষ্ট অনলাইন পরীক্ষা সংক্রান্ত উপকমিটির দেওয়া এই নির্দেশিকা অনুযায়ীই হাবিপ্রবির অনলাইন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।



অনলাইন পরীক্ষাসংক্রান্ত ঐ নীতিমালায় বলা হয়েছে:

পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান বিধি অনুযায়ী অনুষদ অথবা বিভাগ কর্তৃক পরীক্ষা রুটিন সমূহ প্রকাশিত হবে যা পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ শাখা কর্তৃক নোটিশ বোর্ডে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।



পরীক্ষার নম্বর বন্টন ও সময় নির্ধারণ সংক্রান্ত নিয়মাবলী

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান পরীক্ষা পদ্ধতির কুইজ ও মিড টার্মের জন্য নির্ধারিত মোট নম্বরের যথাক্রমে ১০% ও ২০% নম্বরের পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কোর্স শিক্ষক অনলাইনে এম. সি. কিউ/সৃজনশীল/এসাইনমেন্ট গ্রহণের মাধ্যমে/টার্ম পেপার/মোখিক পরীক্ষা গ্রহণের মাধ্যমে অথবা অন্য যেকোন সুবিধাজনক পদ্ধতিতে গ্রহণ করা যাবে।

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার জন্য বিদ্যমান পরীক্ষা পদ্ধতি অনুযায়ী A ও B সেকশন করে লাগাতার ক্রমিক নম্বর দিয়ে প্রশ্ন প্রণয়ন করা হবে।এক্ষেত্রে ক্রেডিট অনুযায়ী প্রশ্নপত্রের মোট নম্বর বন্টন বিদ্যমান পদ্ধতি অনুযায়ীই হবে। কিন্তু অনলাইন পরীক্ষার সময়কাল ক্রেডিট আওয়ার অনুযায়ী পূর্বের পরীক্ষার সময়কালের অর্ধেক সময় হবে। যেমন, ৩ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ১.৫ ঘন্টা ও ২ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ১ ঘন্টা হবে। ১ ক্রেডিট কোর্সের সময়ও পূর্বের পরীক্ষার সময়কালের অর্ধেক হবে সময় হবে। প্রশ্নকর্তা প্রশ্ন প্রণয়নকালে পরীক্ষার জন্য বরাদ্দ সময়কে বিবেচনায় নিয়ে সংক্ষিপ্ত উত্তর হয় এমন প্রশ্নমালার সন্নিবেশ করবেন। 



পরীক্ষা নেওয়ার জন্য অনলাইন প্ল্যাটফর্ম প্রস্তুতকরণ

প্রতিটি পরীক্ষার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত চীফ সুপারভাইজার কমপক্ষে ২ দিন পূর্বে প্রয়োজনীয় সংখ্যক জুম লিংক তৈরী করবে এবং পরীক্ষার্থীদের ইমেইল,গ্রুপ অথবা গুগল ক্লাশরুমে প্রেরণ হবে।

অনলাইনে ফাইনাল পরীক্ষা নেওয়ার জন্য গুগল ক্লাসরুম ব্যবহার করতে হবে। প্রতি সেমিস্টার/বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি ক্লাসরুম খোলা হবে।

পরীক্ষার্থীদের এবং সংশ্লিষ্ট ইনভিজিলেটরগণকে গুগল ক্লাশরুমে অথবা ইমেইলে একাউন্ট খুলতে হবে। পরীক্ষা শেষ হবার ২০ মিনিটের মধ্যে পরীক্ষার্থীরা নিজ নিজ পরীক্ষার খাতা গুগল ক্লাশরুম অথবা ইমেইলে কম্বাইন্ড পিডিএফ ফাইল করে প্রেরণ করবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কোন পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র আপলোড ও প্রেরণ করতে ব্যর্থ হলে সুপারভাইজারগণ পরীক্ষা বাতিল করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন।

জুমে যুক্ত হবার ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই পরীক্ষার রোল নম্বর এবং নামের ব্যবহার করতে হবে। (যেমন, Student ID_Student  Name)। কোন পরীক্ষার্থী অনুরুপভাবে যুক্ত না হলে কর্তব্যরত ইনভিজিলেটর অথবা পর্যবেক্ষকদের একজন তাকে রিনেইম করে দিবে।

শিক্ষার্থীদের অবশ্যই পরীক্ষা শুরুর অন্তত ১৫ মিনিট পূর্বে জুমে যুক্ত হতে হবে। প্রতিটি পরীক্ষার অন্তত এক ঘন্টা আগে পরীক্ষা কমিটি গুগল ক্লাশরুমের স্ট্রিমে জুমের আইডি-পাসওয়ার্ড এবং জরুরি প্রয়োজনে যোগাযোগ করার জন্য সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কমিটির কমপক্ষে দু'জনের মোবাইল নম্বর পরীক্ষার্থীদের সাথে শেয়ার করবে।



পরীক্ষা দেবার সময় ভিডিও অন রাখতে হবে

পরীক্ষাদের অবশ্যই ভিডিও সচল রেখে দৃশ্যমান থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। তবে বৈদ্যুতিক গোলযোগ বা অন্য কোন কারনে কোন পরীক্ষার্থী জুম প্ল্যাটফর্ম থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পরলে অনধিক ১০ মিনিটের মধ্যে কর্তব্যরত সুপারভাইজারগণের যেকোন একজনকে মোবাইল করে জানাবে। অন্যথায় ভিডিও সচল না থাকলে তা পরীক্ষায় অসদউপায় অবলম্বন করা হয়েছে মর্মে বিবেচিত হবে এবং তা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান বিধি অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ করার শামিল হবে।



উত্তরপত্র সংগ্রহ ও বিতরণ বিষয়ক কার্যাবলী

পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার পূর্বেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া উত্তরপত্রের নির্ধারিত ফরমেট অনুযায়ী A4 সাইজ কাগজে কভার পেইজ নিজ হাতে লিখে প্রস্তুত রাখতে হবে এবং প্রতিটি কোর্সের পরীক্ষার জন্য সর্বোচ্চ দশ (১০) টি শীট নিজ দায়িত্বে পরীক্ষার পূর্বে প্রস্তুত রেখে পরীক্ষায় বসবে। উত্তর পত্রের প্রতি পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠা নম্বর এবং পরীক্ষার রোল নম্বর লিখতে হবে।

এরপর পরীক্ষা শেষ হবার সর্বোচ্চ ২০ মিনিটের মধ্যে উত্তরপত্র কম্বাইন্ড পিডিএফ ফাইল করে গুগল ক্লাশরুম অথবা ইমেইলে প্রেরণ করতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কোন পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র আপলোড ও প্রেরণ করতে ব্যর্থ হলে তাকে যৌক্তিক কারণ উল্লেখপূর্বক অনতিবিলম্বে কর্তব্যরত চীফ সুপারভাইজার ও সুপারভাইজারগণকে অবহিত করতে হবে। সুপারভাইজারগণ তার কারণ বিশ্লেষণ পূর্বক তাকে পরবর্তীতে উত্তরপত্র আপলোড ও প্রেরণের অনুমতি প্রদান করতে পারেন অথবা তার পরীক্ষা বাতিল করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।



ব্যবহারিক পরীক্ষা সংক্রান্ত নীতিমালা

যেসব বিভাগে অথবা অনুষদে ব্যবহারিক কোর্স রয়েছে সেসব ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীর (UGC) এর নির্দেশনা মোতাবেক সশরীরে উপস্থিতি আবশ্যকতা বিবেচনা করে অনলাইনে ব্যবহারিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। এ বিষয়ে কোর্স শিক্ষক এবং বিভাগীয় পরীক্ষা কমিটি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবে।