এখনই স্থায়ী বহিষ্কার হচ্ছে না জগন্নাথের তিথি সরকার

  • 15 Nov
  • 05:49 PM

শাহারিয়ার শাকিল, জবি প্রতিনিধি 15 Nov, 20

ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) সাময়িক বহিস্কৃত ছাত্রী তিথি সরকারের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পরবর্তী পদক্ষেপ আদালতের বিচারকার্যের উপর নির্ভর করছে।

রবিবার (১৫ নভেম্বর,২০২০) এক ফোনালাপে এমন তথ্য জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান।

ফেসবুক পোস্টে ইসলাম ধর্মকে কটূক্তি করার অভিযোগে গত ২৬ অক্টোবর, ২০২০ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয় এবং তাকে কেনো স্হায়ী বহিষ্কার করা হবে না তা ১০ দিনের মধ্যে জানানোর জন্য বলা হয়েছিল। কিন্তু তিথি সরকার তার নিখোঁজের নাটক সাজিয়ে আত্মগোপনে ছিলেন।

তিথি সরকারের বিরুদ্ধে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পরবর্তী পদক্ষেপ কি হবে এমন প্রশ্নে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান জানান,যেহেতু এটি এখন আদালতে চলে গিয়েছে,তাই আমরা আদালতের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিবো।

এদিকে ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার ঘটনা তদন্ত করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। তদন্ত কমিটির কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়েছিল তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড.এ.কে.এম.মনিরুজ্জামানের কাছে।

তিনি বলেন,আমরা কাজ করছি।যেহেতু এটি একটি আইনি বিষয় তাই খুব সময় নিয়ে কাজ করছি আমরা,আর তার আইডি হ্যাকের যে ব্যাপারটা তা আমরাও পরীক্ষা করে দেখতে চাচ্ছি তাই বিটিআরসিকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে। আর যেহেতু এখন এটি আদালতে চলে গিয়েছে, আর আদালতে সে যদি দোষী প্রমাণিত হয় তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা চিঠি চলে আসবে তখন আর এই তদন্ত কমিটিরও দরকার নেই।

উল্লেখ্য যে,অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও গোপন সোর্সের এর দেওয়া তথ্যানুযায়ী গত ১১/১১/২০২০ খ্রি. তারিখে আনুমানিক বিকাল ১৫.৪৫ ঘটিকায় নরসিংদীর মাধবদী থানাধীন দক্ষিণ শিলমান্ধি,পাচদোনা,নরসিংদী এলাকা থেকে তিথী সরকারকে আটক করে পুলিশের গোয়েন্দা তদন্ত বিভাগ।