সোলাইমানির দাফনে বিপুল জনসমাগম, পদদলিত হয়ে ৪০ জনের মৃত্যু

  • 08 Jan
  • 06:43 PM

08 Jan, 20

মার্কিন হামলায় নিহত ইরানের কুদস ফোর্সের প্রধান কাশেম সোলাইমানির দাফনে পদদলিত হয়ে অন্তত ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার ইরানের কেরমান শহরে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে ৩৫ জন মৃত্যুর খবর জানানো হয়েছিল।

ইরানি রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থার বরাত দিয়ে ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, সোলাইমানির নিজ শহর কেরমানে দাফনের আনুষ্ঠানিকতার সময় পদদলিত হয়ে ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন দুই শতাধিক মানুষ।

এদিকে দেশটির জরুরি বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেছেন, এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪০ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ২১৩ জন।

একজন ইরানি স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, মানুষের অতিরিক্ত ভিড়ের কারণে পদদলিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, আগের আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নিতে না পেয়ে অনেকে কেরমানে চূড়ান্ত শবযাত্রা অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন। সংকীর্ণ জায়গায় লোকজন চলাচল করছিল। সবাই সুনির্দিষ্ট কবরস্থানের দিকে যাচ্ছিল। সেখানে ছত্রভঙ্গের ফলে এমন ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ কিছু ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে। ভিডিওগুলোয় শোকার্ত মানুষের আহাজারি এবং মাটিতে পড়ে যাওয়া মানুষ উদ্ধার করার চেষ্টা করতে দেখা যায়।

এর আগে দেশটির জরুরি বিভাগের প্রধান পিরোহসিন কুলিভান্দ রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে জানান, সোলাইমানির মরদেহের আনুষ্ঠানিকতার সময় অতিরিক্ত মানুষের ভিড়ের কারণে আমাদের ৩২ জন নাগরিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় ১৯০ জন। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আজ সকালে কেরমান শহরে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে শোকার্ত জনসমুদ্র দেখা যায়। যেখানে প্রায় ৫ লাখ ৩০ হাজার মানুষ সমবেত হয়েছিল বলে খবরে বলা হয়।

গত শুক্রবার ভোরে ইরাকের বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানি জেনারেল কাশেম সোলাইমানি নিহত হয়েছেন। সোলাইমানি হত্যার ঘটনায় ইরান চরম প্রতিশোধ নেওয়ার ঘোষণা দেয়। এর প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পাল্টা হুমকি দিয়ে বলেন, ইরান হামলা চালালে দেশটির ৫২টি স্থাপনায় খুব দ্রুত ও শক্তিশালী হামলা চালানোর জন্য মার্কিন সেনারা প্রস্তুত।