• 22 Sept
  • 07:20 PM
জাতিসংঘের ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরষ্কার’ অর্জন করায় প্রধানমন্ত্রীকে ডুয়েট উপাচার্যের অভিনন্দন

ডুয়েট প্রতিনিধি 22 Sept, 21

দারিদ্র্য দূরীকরণ, পৃথিবীর সুরক্ষা এবং সবার জন্য শান্তি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ গ্রহণে জাতিসংঘের সার্বজনীন আহবানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশকে সঠিক পথে অগ্রসরের জন্য ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার’ অর্জন করায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), গাজীপুর-এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. হাবিবুর রহমান।

অভিনন্দন বার্তায় উপাচার্য বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ অনেকদূর এগিয়ে গেছে। তাঁর নিরন্তর পরিশ্রম, দূরদর্শী পরিকল্পনা ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশের দারিদ্র্য দূরীকরণ, পৃথিবীর সুরক্ষা এবং সবার জন্য শান্তি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ গ্রহণের সার্বজনীন আহবানে সাড়া দিয়ে ২০১৫ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত টেকসই উন্নয়নে বাংলাদেশের অর্জনের জন্য তিনি এই অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন যা সমগ্র জাতির জন্য অত্যন্ত আনন্দের এবং গর্বের।’

তিনি আরো বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ এবং উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণসহ ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার’ অর্জন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি, এই মহতী ও গৌরবোজ্জ্বল অর্জনের মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের মর্যাদা ও ভাবমূর্তি আরো উজ্জ্বল হয়েছে।’

এছাড়া তিনি কৃতজ্ঞচিত্তে আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের যে চলমান গতিধারা অব্যাহত রয়েছে তার ফলে বাংলাদেশ ২০৪১ সালের আগেই একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে। তিনি বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত, সমৃদ্ধ ও মর্যাদাশীল দেশ বিনির্মাণে প্রকৌশলী সমাজসহ সকলে আত্মত্যাগের মহিমায় উজ্জ্বীবিত হয়ে একযোগে কাজ করবে। এছাড়া তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু, সুস্বাস্থ্য ও সার্বিক মঙ্গল কামনা করেন।