এবার সশরীরে ক্লাস শুরু হলো বাকৃবিতে

  • 05 Oct
  • 10:34 AM

আতিকুর রহমান,বাকৃবি প্রতিনিধি 05 Oct, 21

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) প্রায় দেড় বছর পর সশরীরে শুরু হলো স্নাতক বর্ষের ব্যবহারিক ক্লাস।
সোমবার (৪ অক্টোবর) বিভিন্ন অনুষদের ৩য় বর্ষ থেকে ১ম বর্ষ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের বন্ধ থাকা ব্যবহারিক ক্লাস শুরু হয়। এসকল শিক্ষার্থীদের জন্যে হল খুলে দেওয়া হয়েছে ৩ অক্টোবর থেকে।

জানা যায়, সোমবার কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ এবং কৃষি অনুষদের শিক্ষার্থীদের ব্যবহারিক ক্লাস শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে শুরু হবে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ক্লাস। পরবর্তীতে অন্যদেরও শুরু হবে। কৃষি অনুষদের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের এগ্রোনমি ফিল্ড এবং কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের শিক্ষার্থীদের কংক্রিট এন্ড ম্যাটেরিয়ালস টেস্টিং ল্যাবে এবং ইরিগেশন টেস্টিং ল্যাবে ক্লাস হয়। যথাসম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রত্যেক শিক্ষার্থী মাস্ক পড়ে ক্লাসে আসেন।

কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী সাকিব রহমান বলেন, দীর্ঘ বন্ধের পর সশরীরে উপস্থিত হয়ে ক্লাস করতে পেরে খুবই ভালো লাগছে। করোনার মহামারির পূর্বে খুব অল্প পরিমাণ ক্লাস সশরীরে হয়েছিল এবং বাকি সব ক্লাস অনলাইনেই নেওয়া হয়। কিন্তু আমাদের হাতে কলমে শেখানো ব্যবহারিক ক্লাসগুলো অনলাইনে সঠিকভাবে নেওয়া সম্ভব না। তাই এখন আমাদের বাদ পড়ে যাওয়া ক্লাসগুলো নেওয়া হচ্ছে। আশা করছি এই ক্লাসে ব্যবহারিক সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠতে পারবো।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড . এ. কে. এম জাকির হোসেন বলেন, ডিন কাউন্সিল এবং একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছিল করোনার প্রকোপ যতোদিন থাকবে ক্লাস শিক্ষক অফলাইন বা অনলাইন দুইভাবেই ক্লাস নিতে পারবেন। তবে অফলাইনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাসের ব্যবস্থা করতে হবে। কয়েকটি অনুষদ ব্যবহারিক ক্লাস অফলাইনে শুরু করেছে। তাদের ক্লাস শেষ হলে আমরা দ্রুত পরীক্ষার ব্যবস্থা করবো।

উল্লেখ্য, আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষা শুরু হয়েছে এবং ৩য় বর্ষ থেকে ১ম বর্ষ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হবে আগামী ১৭ অক্টোবর। যেসব বর্ষের ব্যবহারিক ক্লাস এবং ক্লাস টেস্ট পরীক্ষা এখনো শেষ হয়নি। আগামী ৪ থেকে ১০ অক্টোবরের মধ্যে ক্লাস এবং পরীক্ষা শেষ করতে হবে। এসকল সিদ্ধান্ত ১৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত ডিন কাউন্সিলের মিটিংয়ে নেওয়া হয়। সিদ্ধান্তগুলো ২০ সেপ্টেম্বর একাডেমিক কাউন্সিলে পাস হয় এবং ২৩ সেপ্টেম্বর সিন্ডিকেটের মিটিংয়ে পাস হয়।