‘শিক্ষা-গবেষণা’ খাতে বাড়ছে জবির বাজেট, সিন্ডিকেটে পাশ সোমবার

  • 05 Sept
  • 07:38 PM

ফারজানা ইয়াসমিন, জবি প্রতিনিধি 05 Sept, 21

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে শিক্ষা ও গবেষণা খাতে বাজেটের পরিমাণ বাড়ানো হবে। পাশাপাশি গত অর্থ বছরগুলোর চেয়ে এবারের মূল বাজেটের পরিমাণ ও বাড়বে। এবারের বাজেট গবেষণা-নির্ভর করতে চাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ খাতের উন্নয়নে প্রাধান্য দিচ্ছে প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৫তম সিন্ডিকেট সভায় সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) বাজেট পাশ হবে।

রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য জানান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক বলেন, বাজেট সাধারণত যেরকম হয় তেমনই হবে৷ তবে আমাদের শিক্ষাখাতে বাজেট বাড়াতে আমি বলেছি। গবেষণা, যন্ত্রপাতি, কেমিক্যাল, বইপুস্তক ইত্যাদি ক্রয়সহ শিক্ষাসেবায় যেসব প্রয়োজনীয় উপকরণ জরুরি সেসব জিনিসপত্রে আমরা বাজেট বাড়িয়ে দিতে বলেছি। সাধারণত গবেষণার ক্ষেত্রে যা যা জিনিস প্রয়োজনীয় সেগুলোর উপর বাজেট বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। তারপরও আলাপ আলোচনা করে যেমন আনতে পারি।

তিনি আরো বলেন, আশা করছি গত অর্থ বছরের বাজেটের চেয়ে এবছর বাজেট বাড়বে৷ আমরা বাড়ানোর জন্য প্রস্তাবও করেছি। তারপর সেই বাজেট সিন্ডিকেট সভায় পাশ হবে এবং চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ এর সঙ্গে মুঠোফোনের ক্ষুদে বার্তায় যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ৬ সেপ্টেম্বর আমাদের সিন্ডিকেট মিটিং। মিটিং শেষে বাজেটের ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে। তিনি বিস্তারিত জানতে অর্থ দপ্তরের পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন।

অর্থ ও হিসাব দপ্তরের পরিচালক কাজী নাসির উদ্দীন বলেন, অর্থ দপ্তর থেকে নতুন অর্থবছরের বাজেটের সুপারিশ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে তা অর্থ কমিটিতে পেশ করা হয়েছে এবং অনুমোদন ও পেয়েছে। এখন তা সিন্ডিকেট সভায় চূড়ান্ত হওয়ার অপেক্ষায়।

তিনি আরো বলেন, বিগত বছর গুলোতে এ বছর বাজেট বাড়বে। আমরা ফরমেট অনুযায়ী বাজেট তৈরি করেছি। ঘাটতি বাজেটের অর্থ বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের নিকট সম্পূরক বাজেটের সময় প্রস্তাব চাওয়া হবে।

উল্লেখ্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ অর্থ বছরে ১৫৭ কোটি ৮০ লাখ টাকার রাজস্ব বাজেট পাস করা হয়।