জরিপে প্রায় ৭৭ শতাংশ শিক্ষার্থীর অনলাইন ক্লাসে অনীহা

  • 17 May
  • 09:25 AM

আব্দুল্লাহ আল মুবাশ্বির, হাবিপ্রবি প্রতিনিধি 17 May, 20

করোনায় বিপর্যস্ত পুরো দেশ।এমন প্রতিকুল পরিস্থিতিতে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাও প্রায় হুমকির মুখে। সবকিছু স্বাভাবিক না হলে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকতে পারে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন(ইউজিসি) এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় দেশের সকল সরকারি এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যায়কে অনলাইনে ক্লাশ নেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। এমন সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কি ভাবছেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(হাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা তা জানতেই মূলত জরিপ চালিয়েছে হাবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি।জরিপে অংশগ্রহণ করে হাবিপ্রবির ২৮১ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে প্রায় ২২০ জন শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাশ না করার পক্ষে মতামত দিয়েছেন।শতাংশের হিসাবে যা প্রায় ৭৭%।অপরদিকে অনলাইনে ক্লাশ না করার পক্ষে মতামত দিয়েছেন ৬১ জন শিক্ষার্থী।

এ ব্যাপারে অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ রাজিব হাসান বলেন,আমি অনলাইন ক্লাশ নিতে একেবারেই প্রস্তুত। তবে এটাও সত্য, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়েরর অধিকাংশ শিক্ষার্থী মধ্যবিত্ত এবং নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা।এজন্য তাদের ইন্টারনেট পরিসেবা গ্রহণ করে অনলাইনে ক্লাশ করার সক্ষমতা ঠিক কতটুকু আছে,এটাও আমাদের বিবেচনায় আনতে হবে।এইক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যদি কেন্দ্রীয়ভাবে কোন নির্দেশনা প্রদান করেন, তাহলে আমার অনলাইন ক্লাশে কোন আপত্তি নেই।সেক্ষেত্রে আমার মতামত হলো, নির্দিষ্ট কোর্সের যেই টপিক অনলাইনে ক্লাশ নেওয়া হবে, তা যেন পিডিএফ ফাইল আকারে গুগল ড্রাইভে আপলোড করে শিক্ষার্থীদের সরবরাহ করা হয়।যেন কোন শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাশ মিস করে ফেললেও সেটা থেকে উপকৃত হতে পারে।তবে যারা ব্যক্তি উদ্যোগে অনলাইনে ক্লাশ নিচ্ছেন,তাদের সাধুবাদ জানাই।

যেসকল শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাশ না করার পক্ষে মতামত দিয়েছেন,তাদের অধিকাংশের অভিমত হলো, ইন্টারবেট পরিসেবা গ্রহণ করে অনলাইনে ক্লাশ করার আর্থিক সামর্থ্য তাদের নেই। সেক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যদি তাদের সহযোগিতা করে তাহলে অনলাইন ক্লাশে তাদের কোন আপত্তি থাকবে না।