বোটানিক্যাল গার্ডেনে শিক্ষার্থীরা গবেষণালব্ধ নতুন প্রজাতির উদ্ভাবন ঘটাবে- ইবি উপাচার্য

  • 21 June
  • 12:35 PM

আজাহার ইসলাম, ইবি প্রতিনিধি 21 June, 20

‘আমাদের এখানে কিছু বিভাগ আছে যারা সরাসরি বোটানিক্যাল গার্ডেনের সাথে সম্পৃক্ত। এসব বিভাগের শিক্ষার্থীরা গার্ডেনে গবেষণা করবে এবং গবেষণালব্ধ নতুন নতুন প্রজাতির উদ্ভাবন ঘটাবে।’

রোববার (২১ জুন) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানিক্যাল গার্ডেনের পরিদর্শন শেষে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী।

তিনি বলেন, ‘গত বছর আগস্টে আমরা বোটানিক্যাল গার্ডেনের উদ্বোধন করেছিলাম। কিছু ত্রুটির কারণে গার্ডেনের কাজ শুরু করতে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। এবছর থেকে আমরা দূর্লভ সব বিলুপ্ত প্রজাতি এবং নতুন নতুন প্রজাতির গাছ এখানে রোপন করছি। আমরা ইবির বোটানিক্যাল গার্ডেন নিয়ে শতভাগ আশাবাদী।’

এসময় মার্কেটিং বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. জাকারিয়া রহমান, প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) আলীমুজ্জামান (টুটুল) প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ১৬ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানিক্যাল গার্ডেনে চলতি মৌসুমে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। এ কর্মসূচির আওতায় ভেষজ, ফলজ, মসলা, ফুলের গাছসহ বিভিন্ন ধরনের উদ্ভিদের চারা ও বীজ পুরো মৌসুম জুড়ে লাগানো হবে বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য, গতবছর ৩ আগস্ট ঔষুধি, ফল, ফুল ও কাঠ সহ মোট ৮৫ প্রজাতির গাছ নিয়ে বোটানিক্যাল গার্ডেনের উদ্বোধন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকের পাশেই ৬ বিঘা জমির উপর করা হয়েছে এই গার্ডেন।