ইবি শিক্ষক সমিতি: ‘রোজিনাকে গ্রেফতার গণমাধ্যমের স্বাধীনতার উপর চরম আঘাত’

  • 20 May
  • 09:16 AM

আজাহার ইসলাম, ইবি প্রতিনিধি 20 May, 21

দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেফতারের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শিক্ষক সমিতি। একইসাথে ‘অফিসিয়াল সিক্রেটস’ আইনে সাংবাদিকদের গ্রেফতার বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. কাজী আখতার হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মোস্তাফিজুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রথম আলাের অনুসন্ধানী প্রতিবেদক রােজিনা ইসলাম পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে সচিবালয়ের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে গেলে সেখানকার কর্মকর্তা কর্তৃক পাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে তার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানাে হয়েছে এবং সরকারি নথি চুরি কথিত অপরাধে পরবর্তীতে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছে শিক্ষক সমিতি মনে করে এটি সাংবাদিক ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতার উপর চরম আঘাত এবং সভ্য দুনিয়ায় একজন সাংবাদিকের ওপর এ রকম নির্যাতনের ঘটনা ঘটতে পারে তা অকল্পনীয়।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি অনতিবিলম্বে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ, সাংবাদিক রােজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে পুলিশি তদন্ত বন্ধ, তাকে দ্রুত মুক্তিসহ অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে সাংবাদিকদের গ্রেফতার বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছে। একই সাথে সাংবাদিক, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা রক্ষা ও সংবাদ কর্মীদের নিরাপত্তা বিধানে যত্নবান হওয়ার প্রতি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।

উল্লেখ্য, গত ১৭ মে (সোমবার) ‘রাষ্ট্রীয় গোপন নথি’ চুরি চেষ্টার অভিযোগে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক অনুসন্ধানী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগে পাঁচ ঘন্টার বেশি সময় আটকে রেখে হেনস্তা করা হয়। পরে রাতে তাকে ‘অফিসিয়াল সিক্রেটস' আইনের মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়৷ পরদিন ১৮ মে (মঙ্গলবার) তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নিতে পুলিশের আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।