ডুয়েটে ২০২০-২১ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা সফলভাবে অনুষ্ঠিত হলো

  • 01 Oct
  • 01:10 AM

রাহেদুল ইসলাম,ডুয়েট প্রতিনিধি 01 Oct, 21

ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), গাজীপুর এ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই স্বশরীরে অনুষ্ঠিত হলো ২০২০-২১ সেশনের ১ম বর্ষ বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং/ বি.আর্ক প্রোগ্রামের দুই দিনের ভর্তি পরীক্ষা।

২৯শে সেপ্টেম্বর'২১ ইং রোজ: বুধবার, সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত দুই শিফটে প্রথম দিনে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ও কেমিক্যাল অ্যান্ড ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেটারিয়ালস এন্ড মেটালার্জিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং সহ মোট ৪ বিভাগের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ ৩০শে সেপ্টেম্বর'২১ইং, রোজ: বৃহস্পতিবার যথানিয়মে প্রথম শিফটে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ও ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার এবং দ্বিতীয় শিফটে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগসহ মোট ৫টি বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ বিষয়ে বিস্তারিত, ডুয়েট ভর্তি পরীক্ষা (২০২০-২১) কমিটির কো-অর্ডিনেটর ও ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. রুমা জানান, এবারের দুইদিন ব্যাপী ৪ শিফটের ৯টি বিভাগের ভর্তি পরীক্ষায় যথাক্রমে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং- ১২০টি আসনের বিপরীতে ১৩৪৬ জন, ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং-১২০টি আসনের বিপরীতে ১৭৮৫জন, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-১২০টি আসনের বিপরীতে ১২৮৩জন, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-১২০টি আসনের বিপরীতে ১০৬৪জন, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং-৬০টি আসনের বিপরীতে ২৯১জন, ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার-৩০টি আসনের বিপরীতে ১৫২জন, ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং-৩০টি আসনের বিপরীতে ৫৪৫জন, কেমিক্যাল অ্যান্ড ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং-৩০টি আসনের বিপরীতে ১৮২জন, এবং মেটারিয়ালস এন্ড মেটালর্জিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-৩০টি আসনের বিপরীতে ৪৩৫জন শিক্ষার্থী অনলাইনে আবেদন প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত যাচাই-বাছাই শেষে ভর্তি পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের ডুয়েটে সাধারণত আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ১ম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা ইতিপূর্বে সকল বিভাগের একই দিনে অনুষ্ঠিত হলেও এবারের পরিবেশ পরিস্থিতি একটু ভিন্ন। তাই পরীক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত সুরক্ষা, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও শারিরিক দুরত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একদিনের পরিবর্তে আমরা ২৯ ও ৩০শে সেপ্টেম্বর’২১ইং দুইদিনে সর্বমোট ৪টি শিফটে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে পরীক্ষায় ৯টি বিভাগে উপস্থিতির পরিমাণ ৯৫% এর বেশি। এমনকি উপস্থিত পরীক্ষার্থীদের মধ্যে কারো কোনরূপ স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণ লক্ষ্য করা যায়নি।

ভর্তি পরীক্ষা স্বশরীরে গ্রহণ করা এই পরিস্থিতিতে কতটুকু চ্যালেঞ্জ মনে করেন?
সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হ্যাঁ, অবশ্যই এটি একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ ছিল! কিন্তু আমাদের মাননীয় উপাচার্য ড. মোঃ হাবিবুর রহমান, উপ-উপাচার্য ড. মোঃ আবদুর রশীদ, (পরিচালক) ছাত্রকল্যাণ অধ্যাপক ড. মোঃ নজরুল ইসলাম সহ সকল প্রশাসনিক কর্মকর্তাগণ স্বদিচ্ছায় ভর্তিচ্ছুদের অধীর আগ্রহে দীর্ঘদিন অপেক্ষার অবসান এবং সার্বিক কল্যাণের বিষয়টি মাথায় রেখেই নিয়মিত সকল বিভাগের সেমিষ্টার ফাইনাল পরীক্ষা চলমান থাকা স্বত্ত্বেও এই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত হয়েছে। আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

আলহামদুলিল্লাহ! প্রথম দিনের মতো আমরা সফল হয়েছি। পরবর্তী ধাপগুলোও আমরা সফল হবো ইনশাআল্লাহ। সামনে আরেকটি চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা রয়েছে। তা হলো- এই ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক সিদ্ধান্তু মেতাবেক আগামী নভেম্বরেই প্রথম বর্ষের ক্লাশ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে- সেটি নিশ্চিত করা।

বিশেষত, দেশের অধিকাংশ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুলো ২০২০-২১ সেশনের স্নাতক পর্যায়ের ১ম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা নিতে খুবই কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হচ্ছে বারবার। অর্থাৎ, কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে
সাধারণ মানুষ খুবই কঠিন সময় পার করছে। তেমনি ডুয়েট আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ভর্তি পরীক্ষা আরো আগে নেওয়ার সিদ্ধান্ত থাকলেও দুইধাপ পিছিয়ে অবশেষে আজ অপেক্ষার অবসান হলো।


উল্লেখ্য, ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর -এ কেবলমাত্র বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সকল সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হতে ৪বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং/আর্কিটেকচার/ এগ্রিকালচার এর যেকোন টেকনোলজি হতে পাশকৃত শিক্ষার্থীদের কে ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ১ম বর্ষ বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ও বি.আর্ক প্রোগ্রামে ভর্তি করা হয়। সরকারীভাবে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের জন্য একমাত্র উচ্চশিক্ষার প্রতিষ্ঠান এটি।