ব্যাক্তিগত আলাপচারিতা ও সংবাদ সাক্ষাৎকার

  • 12 June
  • 12:18 AM

জবি প্রতিনিধি 12 June, 20

আমরা প্রতিনিয়ত নানা বিষয়ে কথা বলি। কাছের মানুষ হলে, পরিচিত হলে, আপন মানুষ হলে বিভিন্ন প্রসঙ্গে অনেক আলাপ করি। কিন্তু এই আলাপ কি সংবাদের উপাদান হতে পারে? হ্যাঁ অবশ্যই হতে পারে ব্যক্তিগত আলাপচারিতাতে আপনি সংবাদের অনুসঙ্গ পেতে পারেন। কিন্তু যখন সেটা আপনি পাচ্ছেন তখন সেই বিষয়টা আলাপরত ব্যক্তিকে দ্বিতীয়বার উল্লেখ করে, সে বিষয়ে সুর্নি‍দিষ্ট বক্তব্য নেওয়া খুবিই জরুরি। এটা সাংবাদিকতার মৌলিক নীতির মধ্যে পড়ে। Code of Ethics এ আমরা এসব পড়েছি। চেষ্টা করি ছেলেমেয়েদের একটু পড়ানোর।

একবার খেয়াল করুনতো ... প্রতিদিনের আলাপে আপনি আপনার শিক্ষক-সহকর্মী-সুধীজন, এমনকি রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি নিয়ে কত ধরনের আপত্তিকর, অশ্লীল ও অন্য ধরনের কথা বলেন। সেই কথাগুলো যদি কেটে কুটে সংবাদ করা হয়। তাহলে আপনার প্রতি কি সুবিচার করা হবে?

নিশ্চয় নয়?

তাহলে একজন সম্মানিত ব্যক্তির ব্যক্তিগত আলাপচারিতাকে পুঁজি করে তাঁর চরিত্রহনন কি শোভনীয় কিছু?

আবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিচারালয়ে সে বিষয়ে বিচার-আচারও কি শোভনীয়। শুধু একবার নিজেকে ঐ জায়গায় নিয়ে চিন্তা করুন, তাহলে বুঝতে পারবেন, উপলব্ধি করতে পারবেন।

বুঝতে পারছি, এই পোস্টের পর আমাকেও কটু কথা বলবেন। গালি দেবেন। শুধু এটুকু বলে রাখি, এই অশুভ চর্চা, এই অনৈতিক চর্চা কোন ইতিবাচক বিষয় হতে পারে না।

বিশ্বাস করুন ... কাল বা পরশু আপনি এর শিকার হতে পারেন। তখন হয়তো বর্তমান ভুক্তভোগী মানুষের জ্বালা একটু হলেও বুঝতে পারবেন।

ধন্যবাদ।

মো. মিনহাজ উদ্দীন
সহকারী অধ্যাপক
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।