বুটেক্সে বন্ধ হচ্ছে শিউর ক্যাশ

  • 28 Oct
  • 07:53 PM

বুটেক্স প্রতিনিধি 28 Oct, 21

রুপালি ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা শিউর ক্যাশের মাধ্যমে ২০১৮ থেকে বুটেক্সে আর্থিক লেনদেন হয়ে আসছে। কিন্তু রুপালি ব্যাংক এই সেবা গুটিয়ে নেয়ার কারনে বুটেক্স শিক্ষার্থীগণ বিপাকে পড়ে গিয়েছে। সারাদেশে শিউর ক্যাশের এজেন্ট সংখ্যা একদম অপ্রতুল এমনকি রাজধানীতেও শিউর ক্যাশের এজেন্ট নেই বললেই চলে, হাতেগোনা দু এক জায়গায় থাকলেও সেসব যায়গায় ব্যালেন্স থাকে না।

সাম্প্রতিক সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপ করতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের নানা রকম হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। শিউর ক্যাশের হয়রানি সম্পর্কে বলতে গিয়ে বুটেক্স শিক্ষার্থী গোলাম কবির হিমুল জানান যে, "জেলা শহর এমনকি বিভাগীয় শহর গুলোতেও শিউর ক্যাশের মাধ্যমে টাকা লেনদেন করার কোন উপায় নেই ফলশ্রুতিতে ২য় সেমিস্টারের ফর্ম ফিলাপের জন্য ঢাকাতে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে শিউর ক্যাশে টাকা দিতে হয়েছে"।

শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে বুটেক্স প্রশাসন শিউর ক্যাশের বদলে বিকাশ অথবা নগদের মাধ্যমে মোবাইল ব্যাংকিং চালু করতে চাচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রশাসন বহুল ব্যবহারের কারনে বিকাশের মাধ্যমে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালু করতে বেশি আগ্রহ প্রকাশ করেছে এবং বিকাশের সাথে কয়েকদফা আলোচনা করেছে। বিকাশের বর্তমান সিস্টেমে বুটেক্সের লেনদেন সম্ভব না হলেও বিকাশ বুটেক্সের জন্য সিস্টেম আপডেট করার কথা প্রশাসনিক সূত্র হতে জানা গিয়েছে।

এর মধ্যে গত ২৫ শে অক্টোবর এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে শিউর ক্যাশেই ৩য়, ৫ম ও ৭ম সেমিস্টারের ভর্তির টাকা ২ অক্টোবরের মধ্যে দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক আবুল কাশেমের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান যে, "শিউর ক্যাশের সমস্যা সম্পর্কে আমরা অবগত আছি এবং বিভিন্ন মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদান প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলেছি, প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছি এবং আশা করছি পরবর্তী সেমিস্টারের পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপের টাকা অন্য মোবাইল ব্যাংকিং সেবা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে নেয়ার ব্যবস্থা করা যাবে।"

এছাড়াও শিক্ষার্থীদের হয়রানির কথা চিন্তা করে আগামী রবিবার থেকে তিনি প্রতিবেদকের সামনেই ক্যাম্পাসে শিওর ক্যাশ এজেন্ট নিয়ে আসার জন্য নির্দেশ দেন এবং শিক্ষার্থীরা সময় বাড়ানোর আবেদন করলে ভর্তি হওয়ার সময় বাড়িয়ে দিবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।