বিশ্ববরেণ্য তুমি মোদের জনক, হে মুজিব

  • 11 Aug
  • 11:26 PM

ভার্সিটি ভয়েস ডেস্ক 11 Aug, 21

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান! বিশ্ব দরবারে এক অনন্য ব্যক্তিত্ব। বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে দেশের সমস্ত মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করতে যিনি অন্যতম ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি ছিলেন আমাদের জাতির পিতা শেখ মুজিব।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ খ্রিস্টাব্দের ১৭ ই মার্চ অবিভক্ত ভারতবর্ষে বাংলা প্রদেশের গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা তিনি। নিপীড়িত জাতির কালো মেঘের দুর্দশা দূরীকরণে যেন এই অসাধারণ দেশপ্রেমী ও দূরদর্শী নেতার আবির্ভাব। কৃতজ্ঞ বাঙালি ভালোবেসে ১৯৬৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু উপাধিতে ভূষিত করেন এবং স্বাধীনতার পর তাঁকে জাতির পিতা মর্যাদায় অভিষিক্ত করা হয়।

"যত দিন রবে পদ্মা মেঘনা যমুনা বহমান
ততদিন রবে কীর্তি তোমার
শেখ মুজিবুর রহমান"।

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা অর্জন পর্যন্ত প্রতিটি ক্ষেত্রে রয়েছে তাঁর অসামান্য অবদান যা অতুলনীয়। ১৯৪৮ সালের সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হলে শেখ মুজিব যুক্ত হন। এরপর ১৯৪৯ সালে আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হলে ১৯৫৩ সালে বঙ্গবন্ধু সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন । ১৯৬৬ সালে তিনি পেশ করেন বাঙালির মুক্তির সনদ ছয় দফা। ১৯৭১ সালের ৩ রা মার্চ অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন। ৭ ই মার্চ ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ দেন-

"এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম।"

২৫ শে মার্চ কাল রাতে পাক সেনা বাহিনীর হত্যাযজ্ঞে সারা বাংলাদেশের মানুষ বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। পরবর্তীতে ২৭ শে মার্চ চট্টগ্রামের কালুরঘাট থেকে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার ঘোষণা দেন।

দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মধ্য দিয়ে শেষে বাংলাদেশর স্বাধীনতার সূর্য উদিত হয়। স্বাধীকার থেকে স্বাধীনতার সংগ্রাম সবই পরিচালনা করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি ছিলেন এক অসাধারণ বজ্রকন্ঠ। কিন্তু দেশের সকল বাধা অতিক্রম করে যখন এগিয়ে যাচ্ছিল আবারো এক চক্রান্তের শিকার হন তিনি ও তাঁর পরিবার। অবশেষে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বন্ধবন্ধু সপরিবারে নিহত হন। তাই বাঙালি জাতি প্রতি বছর তাঁদের স্মরণে এই দিনটি শোক দিবস হিসেবে পালন করেন।

বঙ্গবন্ধুর অসামান্য কীর্তি কখনো ভুলবার নয়, তাঁরই প্রেরণা ও সাহসে আজ আত্মপরিচয় হীন জাতি খুঁজে পেয়েছে তাঁদের অস্তিত্ব ও মর্যাদা। স্বাধীন জাতি হিসেবে পরিচয় দিতে পারছে বিশ্ব দরবারে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা ইতিহাসে এক উজ্জ্বল নক্ষত্রের নাম হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ আজ সমগ্র বাঙালি জাতির কাছে এক ও অভিন্ন।

"তোমার স্বপ্নে পথ চলি আজও
চেতনায় মহীয়ান
মুজিব তোমার অমিত সাহসে
জেগে আছে কোটি প্রাণ।"

শোকের ৪৬ বছর পূর্তিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাই তোমাদেরই তথা দেশের সকল শহীদদের তরে।


লেখকঃ-
নিপা রাণী সাহা
শিক্ষার্থী,আইন বিভাগ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।