বিএসপিএস এক্সিলেন্সি এ্যাওয়ার্ড- ২০২১ পেলেন যাঁরা

  • 02 July
  • 07:43 PM

নিজস্ব প্রতিবেদক 02 July, 21

বাংলাদেশে মনোবিজ্ঞানকে এগিয়ে নিতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের পাঠদান এবং গবেষণার স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ স্কুল সাইকোলজি সোসাইটি প্রথমবারের মতো এক্সিলেন্সি এওয়ার্ড ২০২১ এর আয়োজন করে। এতে ঢাবি, রাবি, চবি, জবি, বশেমুরপ্রবি এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের বিভিন্ন শিক্ষক শিক্ষিকাগণ অংশগ্রহণ করেন।

গত ৩০ জুন, বিকাল ৫ টায় বাংলাদেশ স্কুল সাইকোলজি সোসাইটির সভাপতি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে এই ওয়েবিনার শুরু হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মশিউর রহমান। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পলিসি রিসার্চ সেন্টার (পিআরসি) বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আকবার উদ্দিন আহমেদ এবং প্রফেসর ড. আবদুল খালেক (এডজাঙ্কট প্রফেসর, ইউনিভার্সিটি অব কানেক্টিকাট, যুক্তরাষ্ট্র)।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ মনোবিজ্ঞানী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ রওশন আলী, প্রফেসর ড. হামিদা আকতার বেগমসহ ভারত, নেপাল এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানের শিক্ষকগণ।

অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক এবং প্রভাষক - এই ৪ ক্যাটাগরিতে মনোবিজ্ঞানে শিক্ষা ও গবেষণায় অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১১ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা নির্বাচিত হন।

একটি গবেষণামূলক পরিসংখ্যানিক পদ্ধতি অবলম্বন করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্য থেকে সেরা শিক্ষকদের নির্বাচন করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের ফিডব্যাক ছিল একটি গুরুত্বপূর্ণ মানদণ্ড।

অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে মুহাম্মদ কামাল উদ্দিন (ঢাবি), অশোক কুমার সাহা (জবি), কাজী সাইফুদ্দীন (জবি) এবং সহযোগী অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে মোঃ নুরূল ইসলাম (চবি), সামসাদ আফরিন হিমি (জবি), মোঃ নূর-ই-আলম সিদ্দিকী (রাবি) নির্বাচিত হন। এছাড়া সহযোগী অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে নিতাই কুমার সাহা (রাজশাহী কলেজ), সানজিদা খান (জবি), অলি আহমেদ (চবি) এবং প্রভাষক ক্যাটাগরিতে জাকিয়া রহমান (ঢাবি), এস এম রুমানা পারভীন (বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ) নির্বাচিত হন।

অনুষ্টানে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী এবং শুভানুধ্যায়ীদের অংশ গ্রহণে প্রাণবন্ত ছিল পুরোটা সময়। শিক্ষার্থীরা মনোবিজ্ঞান নিয়ে তাদের মতামত এবং অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

বিএসপিএস এর সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন- "মনোবিজ্ঞানকে এগিয়ে নিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশ স্কুল সাইকোলজি সোসাইটির এমন আয়োজন অব্যাহত থাকবে।"

প্রভাষক হিসেবে পুরস্কারপ্রাপ্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষিকা জাকিয়া রহমান নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন - "এই স্বীকৃতি আমাকে ভবিষ্যতে আরো বেশি ডেডিকেশনের সাথে পাঠদানের জন্য অনুপ্রাণিত করবে।"

শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের চাওয়া শিক্ষার্থীবান্ধব ও ফলপ্রসূ পাঠদানের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবে এই পুরস্কার যেন নিয়মিত প্রচলিত থাকে।

বাংলাদেশ স্কুল সাইকোলজি সোসাইটি( BSPS) একটি অলাভজনক সংগঠন হিসেবে শিক্ষাব্যবস্হা, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে গবেষণা ও বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচি পরিচালনা করে থাকে। সেই সাথে বাংলাদেশে স্কুল সাইকোলজির প্রসারে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি।