বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীতে বাকৃবির নানা আয়োজন

  • 16 Dec
  • 04:15 PM

আতিকুর রহমান, বাকৃবি প্রতিনিধি 16 Dec, 21

মহান বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) সংঘটিত হয়েছে নানা আয়োজন। যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসবমুখর পরিবেশে এসব আয়োজনের মধ্যে ছিল কুচকাওয়াজ, শহীদ বেদিতে পুস্পস্তবক অর্পণ, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি। এসব কর্মসূচি বাস্তবায়নে ছিল বাকৃবি জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটি। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকেও নানান কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।

দিনের শুরুতে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর সকাল সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেডিয়ামে শিশু কিশোরদের অংশগ্রহণে কুচকাওয়াজ ও শারীরিক কসরত প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে বাকৃবি চত্বরে অবস্থিত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ ‘মরণসাগরে’ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান।

এরপর শহীদদের স্মরণে দোয়া ও এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এসময় বাকৃবি উপাচার্য বলেন, দীর্ঘ ২৪ বছরের নিপীড়ন, নির্যাতন থেকে মুক্তির জন্য লড়াই করে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাইতো মানুষ আজ স্বাধীনতার আনন্দ উপভোগ করছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন, বাকৃবি ছাত্র, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্ত করবো।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা, প্রক্টর, বিভিন্ন শিক্ষক ও ছাত্র সংগঠন, কর্মকর্তা, কর্মচারী পরিষদ এবং সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

এছাড়া বেলা ১১ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারবর্গের সংবর্ধনা এবং পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রীন ভয়েসের আয়োজনে সাইকেল র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। দুপুরে বিভিন্ন ধর্মীয় উপাসনালয়ে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হয়। পাশাপাশি বিকাল চারটায় প্রধানমন্ত্রীর শপথ পাঠ জয়নুল আবেদিন মিলনায়তন অডিটোরিয়ামে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।