বাউয়েটে ‘হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস প্রোগ্রাম’ এর গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত

  • 19 Nov
  • 03:25 PM

সাফাত রহমান, বাউয়েট প্রতিনিধি 19 Nov, 20

বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এান্ড টেকনোলজি (বাউয়েট) এ ভার্চুয়াল প্রতিযোগিতা ‘হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস প্রোগ্রাম গ্র্যান্ড ফিনালে’ অনুষ্ঠিত হয়। গত ১৪ নভেম্বর ২০২০ তারিখে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য মহোদয় ব্রিগেডিয়ার জেনারেল প্রফেসর মোঃ মুস্তাফা কামাল।

উক্ত সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার লেফটেন্যান্ট কর্ণেল শেখ শামীম হোসেন (অব.), বিভিন্ন অনুষদের ডিনগণ, বিভাগীয় প্রধানগণ, উপদেষ্টাগণ, বিচারকমণ্ডলী এবং কার্যকরী কমিটির সদস্যবৃন্দ।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের ছাত্রী সাদিকা তাবাস্সুম ও সাকিব ওয়াহিদ এবং ইইই বিভাগের ছাত্র তাইমুন হাসানের টিম ‘এরাইভাল’। এছাড়া প্রথম রানার-আপ হয় ‘দ্য রেভ্যুলুশন স্টার্টারস' এবং দ্বিতীয় ২য় রানার-আপ হয় ‘পট টু প্লেট’।

গত ৬-১১-২০২০ তারিখে প্রথম পর্বে অন-ক্যাম্পাস প্রোগ্রামটিতে ২১ টি দল নিজেদের আইডিয়া তুলে ধরে। বিচারক হিসেবে দায়িত্ব¡ পালন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মির্জা এ.এফ.এম. রশিদুল হাসান, গবেষক ও প্রকৌশলী আজমাইন ইয়াক্বিন সৃজন, উদ্যোক্তা এবং ল্যাব-এআরের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও চিফ অপারেটিং অফিসার প্রিন্স রায় এবং শীর্ষস্থানীয় সাইবার সিকিউরিটি স্টার্টআপ পেন্টেস্টার স্পেসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও চিফ অপারেটিং অফিসার ইব্রাহিম খলিল।

এবছরে হাল্ট প্রাইজ বাউয়েট অন-ক্যাম্পাস প্রোগ্রাম সফল করার উদ্দেশ্য কার্যকরী কমিটির পাশাপাশি সার্বিক তত্ত্বাবধানের জন্যে গঠিত উপদেষ্টা প্যানেলে ছিলেন প্রক্টর ও কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ গোলাম সারোয়ার ভূঁইয়া, কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রভাষক মোঃ সাব্বির এজাজ ও মোঃ মেহেদী হাসান । হাল্ট প্রাইজ বাউয়েটের ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে সামরান রহমান এবং ডেপুটি ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে হিমেল বিশ্বাস দায়িত্ব পালন করেন।

উল্লেখ্য, অন-ক্যাম্পাস রাউন্ডের বিজয়ী দল আঞ্চলিক সম্মেলনে অংশ নেবে। এরপরে, তারা হাল্ট প্রাইজের ফাইনাল প্রোগ্রামে সরাসরি প্রবেশ করবে। আগামী বছরের সেপ্টেম্বরে “ফুড ফর গুড” চ্যালেঞ্জের উপর ভিত্তি করে জাতিসংঘের সদর দফতরে অনুষ্ঠিত হবে গ্লোবাল ফাইনাল, যেখানে বিজয়ী দলকে তাদের ব্যবসায়ের পরিধি বিস্তার করার জন্য পুরষ্কার হিসেবে দেওয়া হবে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।