বশেমুরবিপ্রবিতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • 01 Nov
  • 10:30 PM

সাইকি মিজান বৃষ্টি, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি 01 Nov, 20

দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) ট্রাস্টি বোর্ড কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের অনুমতি পেয়েছে । ২৪০ বর্গমিটার স্থান জুড়ে ১৫ কোটি ৪৪ লাখ টাকা বরাদ্দ খাতে এই ম্যুরাল কমপ্লেক্সটির নির্মাণকাজ শীঘ্রই শুরু করা হবে।

বশেমুরবিপ্রবির পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও ওয়ার্কস দপ্তরের উপ-পরিচালক তুহিন মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, “বঙ্গবন্ধুুর ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন প্রদান করেছেন। আগামী দু-একদিনের মধ্যে অনুমোদন সংক্রান্ত চিঠি আমাদের কাছে এসে পৌঁছাবে এবং এরপর যত দ্রুত সম্ভব টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।”

এসময় তিনি আরও বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়টি জাতির জনকের পূণ্যভূমিতে অবস্থিত। তাই আমাদের দায়বদ্ধতাও বেশি। আমরা চেষ্টা করবো সর্বোচ্চ সুন্দরভাবে ম্যুরাল কমপ্লেক্সটি নির্মাণ করার।”

এর আগে, যোগদানের পরপরই বশেমুরবিপ্রবির উপাচার্য ড.এ.কিউ.এম মাহবুব জানিয়েছিলেন মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরাও আনন্দ প্রকাশ করেছে ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের অনুমোদন পাওয়াতে। আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আহমেদ আকাশ বলেন, “জাতির পিতারই নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল না থাকা টা ছিল আমাদের জন্য অতীব দুঃখজনক একটা ব্যাপার৷ মূলত বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল অনেক আগেই তৈরি করা উচিত ছিল কিন্তু সেটা হয়নি। তবে দেরিতে হলেও অবশেষে ম্যুরালের কাজ শুরু হচ্ছে জেনে খুবই উচ্ছ্বসিত।”

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে অনুমোদনপ্রাপ্ত বশেমুরবিপ্রবি অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের কথা ছিলো। ওইসময়ে ম্যুরালের জন্য বরাদ্দ ছিলো দুই কোটি ৫০ লাখ টাকা এবং ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে ম্যুরালটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার কথা ছিলো। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ম্যুরালটির নির্মাণ কাজই শুরু হয়নি। পরবর্তীতে বশেমুরবিপ্রবি অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয় এবং ২০১৮ সালে প্রকল্পটির বাজেট রিভাইজড করা হয়। রিভাইজড বাজেটে ২৪০ বর্গমিটার স্থানে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য ১৫ কোটি ৪৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়।