বশেমুরবিপ্রবিতে তৃতীয় দিনের মত অনশনে ভর্তিচ্ছুরা, অসুস্থ ৪

  • 29 Oct
  • 12:53 PM

সাইকি মিজান বৃষ্টি, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি 29 Oct, 20

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তিপরীক্ষায় অপেক্ষমান তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের একাংশ টানা তৃতীয় দিনের মত ভর্তির দাবিতে আমরণ অনশন করছেন।

অনশনরত শিক্ষার্থীরা জানান, অনশন কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে গতকাল (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মো: মিলন আলী এবং দীপক চন্দ্র দাস নামে দুই অনশনরত শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েন। বর্তমানে তারা গোপালগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়া মো. মাহফুজুল হক ও আল মামুন নামের আরও দুই শিক্ষার্থী বর্তমানে অসুস্থ বোধ করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে মোট ৬ জন অনশন কর্মসূচি পালন করছেন। এদের মধ্যে ৪ জন গত ২৭ অক্টোবর থেকে এবং ২ জন গতকাল (২৮ অক্টোবর) থেকে অনশন কর্মসূচিতে যোগদান করেছেন।

এদিকে, বশেমুরবিপ্রবির উপাচার্য ড. এ.কিউ.এম মাহবুব জানিয়েছেন, অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে নতুন কোনো শিক্ষার্থীকে ভর্তি নেয়া হবে কিনা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য আগামী ১ নভেম্বর ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির সভা আহ্বান করা হয়েছে। নতুন কোনো শিক্ষার্থীকে ভর্তি নেয়া হবে কিনা এ বিষয়ে উক্ত মিটিংয়েই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির প্রধান ড. এম. এ সাত্তার বলেন, ‘উপাচার্য মহোদয় আগামী রবিবার বেলা ১১ টায় ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির জরুরি মিটিং আহ্বান করেছেন। পুনরায় ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা যায় কিনা এ বিষয়ে আমরা মিটিং এ আলোচনা করবো।’

অপরদিকে, ভর্তির নিশ্চয়তা না পাওয়া পর্যন্ত অনশন অব্যাহত রাখবেন বলে জানিয়েছেন অনশনরত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। এইচ ইউনিটের অপেক্ষমাণ তালিকায় থাকা শিক্ষার্থী হুমায়ুনুল ইসলাম বলেন, “আমাদেরকে জানানো হয়েছে যে রবিবার এ বিষয়ে মিটিং অনুষ্ঠিত হবে কিন্তু এমন কোনো নিশ্চয়তা দেয়া হয় নি যে আমাদেরকে ভর্তি করা হবে। একারণে আমরা অনশন অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

প্রসঙ্গত, বশেমুরবিপ্রবিতে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে মোট ৪৪৪ টি আসন শূন্য রয়েছে। এসকল শূন্য আসনের বিপরীতে অপেক্ষমান তালিকা থেকে ভর্তির দাবিতে গত ২৭ অক্টোবর থেকে এ, বি, ই, এফ এবং এইচ ইউনিটের আট শিক্ষার্থী অনশন শুরু করেন।