মেসিকে ছাড়া বার্সার পাঁচে পাঁচ

  • 03 Dec
  • 11:14 AM

03 Dec, 20

মেসিকে ছাড়াই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আরেকটি সহজ জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। ফেরেঙ্কভারোসকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে টানা পাঁচ ম্যাচে জয় পেয়েছে কাতালানরা।

২০০২-০৩ মৌসুমের পর চ্যাম্পিয়নস লিগ গ্রুপ পর্বে প্রথম পাঁচ ম্যাচেই জয় পেল বার্সা। এছাড়া চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসে প্রথম দল হিসেবে টানা পাঁচ ম্যাচ কমপক্ষে একটি করে পেনাল্টি পেয়ে তা থেকে গোল করল দলটি।


রাউন্ড অব সিক্সটিনে আগেই কোয়ালিফাই করেছিল বার্সেলোনা। দলের সেরা তারকাকে তাই বিশ্রামে রাখাই যায়। ডায়নামো কিয়েভের পর ফেরেঙ্কভারোসের বিপক্ষেও স্কোয়াডে রাখা হয়নি নিয়মিত অধিনায়ক মেসিকে।

হাঙ্গেরিয়ান ক্লাবের বিপক্ষে কোম্যান শিষ্যদের পারফরম্যান্স মেসির অনুপস্থিতি খুব একটা টের পেতে দেয়নি। এলএমটেনের ছায়া থেকে বেরিয়ে দ্যুতি ছড়ান আতোয়াঁ গ্রিজম্যান।

লেফট উইং দিয়ে আক্রমণ চালিয়ে গেছে বার্সা। বল মাঠে গড়ানোর ২৮ মিনিটের মধ্যেই তিন গোল করে ম্যাচটি নিজেদের দখলে নেয় বার্সা। গোল তিনটি হয়েছে যেন ‘সাত’-এর নামতা গুনে। ১৪ মিনিটে জর্ডি আলবার বাসে দুর্দান্ত গোল করে দলকে প্রথম এগিয়ে দেন আন্তোয়ান গ্রিজমান।

২১ মিনিটে ডেম্বেলের অ্যাসিস্টে লিড দ্বিগুণ করেন ডেনিশ ফরোয়ার্ড মার্টিন ব্রাথওয়েইট। কাতালানদের সামনে এলোমেলো ফেরেঙ্কভারোস। ২৮ মিনিটে পেনাল্টি পায় সফরকারীরা। বল জালে জড়াতে ভুল হয়নি ডেম্বেলের। ৩৪ মিনিটে ব্রাথওয়েইট ভুল না করলে ব্যবধান বাড়তো আরও।

দ্বিতীয়ার্ধেও আধিপত্য স্প্যানিশ জায়ান্টদের। তবে, জালের ঠিকানা যেনো ভুলে যান ফরোয়ার্ডরা। ৬৭ মিনিটে ড্রিবল করে ডি-বক্সে ঢুকলেও ফিনিশিংয়ে ব্যর্থ ডেম্বেলে।

ম্যাচের বাকি অংশেও এই ফ্রেঞ্চ ফুটবলারের মিসের মহড়া দেখেছে সমর্থকরা। শেষ মুহূর্তে গোলের দু'টি সহজ সুযোগ হারিয়েছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত প্রথমার্ধের ৩ গোলের জয় নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে কাতালানদের।

বার্সেলোনার লক্ষ্য এখন ‘জি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হওয়া যাতে দ্বিতীয় রাউন্ডে পাওয়া যায় সহজতর প্রতিপক্ষ। সেজন্য ঘরের মাঠে শেষ গ্রুপ ম্যাচে জুভেন্টাসের সঙ্গে ভালো করতে হবে। জিতলে কথাই নেই, ড্র হলেও চলবে, এমনকি ১-০ গোলে হারলেও সমস্যা নেই।

জুভেন্টাসও বুধবার রাতে ৩-০ গোলে হারিয়েছে ডায়নামো কিয়েভকে। গোল করেছেন ফেদেরিকো চিয়েসা, আলভারো মোরাতা ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।