পবিপ্রবিরিই এর নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

  • 17 July
  • 06:01 PM

মেহেদী হাসান, পবিপ্রবি প্রতিনিধি 17 July, 21

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটিতে যোগ দেয়া নবীন সদস্যদের নবীনবরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (১০জুলাই) গণ্য মান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয় এই অনুষ্ঠান।

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটিতে নতুন সদস্য নেয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলে সাংবাদিকতা পেশায় আসার জন্য অনেক আগ্রহী ব্যক্তিবর্গ সেখানে আবেদন করেন। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিভিন্ন যাচাই বাচাই শেষে ১৬জনকে মনোনীত করা হয়।যারা বর্তমানে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির তত্ত্বাবধায়নে থেকে সাংবাদিকতার বিষয়ে বিভিন্ন শিক্ষা গ্রহণ করবেন। আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের সংগঠনে প্রবেশ করিয়ে নেয়া হয় গতকাল ভারচুয়ালে অনুষ্ঠিত একটি সভার মাধ্যমে। রেজোওয়ানা হিমেল এবং মোঃ ইমরান হোসেন সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এই নবীনবরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. আবুল কাশেম চৌধুরী। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. সন্তোষ কুমার বসু, দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রতন, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) ড. মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি এবং সিনিয়র সাংবাদিক আবু জাফর সূর্য, দৈনিক ভোরের পাতা ও দি পিপলস টাইমস এর উপসম্পাদক ও পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন চিশতি, দৈনিক মুখপাত্র এর সম্পাদক শেখ জামাল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের দপ্তর সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস চৌধুরী সোহেল এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ইমতিয়াজ উদ্দিন।
উপস্থিত অতিথিবৃন্দ নব্য প্রবেশ করা নবীন শিক্ষানবিশ সাংবাদিকদের স্বাগতম জানান এবং পাশাপাশি তাদের জন্য দিকনির্দেশনা মূলক গুরুত্বপূর্ণ কিছু বক্তব্যও প্রদান করেন।

জনাব রফিকুল ইসলাম রতন তার বক্তব্যে বলেন, গণমাধ্যম কখনোই ছকবাঁধা নিয়মে চলে না। বৈশ্বিক করোনা সংকটে সাংবাদিকতার ক্ষেত্রেও সারাবিশ্বে আজ চরম দুঃসময় চলছে।অসংখ্য পত্রিকা বন্ধ হয়ে গেছে, অসংখ্য সাংবাদিক আজ বেকার।তবুও এরই মধ্যে সাংবাদিকতার মতো একটি নজিরবিহীন, বহুমুখী চ্যালেঞ্জিং পেশায় নতুনদের আগমনে তিনি আনন্দিত।
জনাব আবু জাফর সূর্য তার বক্তব্যে বলেন,“সাংবাদিকতা হচ্ছে একটি সিদ্ধান্ত যা কার্যকর করতে প্রয়োজন বিশেষ কিছু গুণের ডায়াগনোসিসের মাধ্যমে যেমন রোগীর রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসা হয় সহজ ঠিক তেমনি সাংবাদিকতার মাধ্যমে সমাজের ক্ষতগুলো কে তুলে ধরার মধ্য দিয়ে প্রশাসনের পক্ষে তার সমাধান করা ও সহজে সম্ভব হয়ে ওঠে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রেও ঠিক তাই।”

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ইমতিয়াজ উদ্দিন বলেন, সংবাদ করার সময় বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রেখে সঠিক তথ্য নিশ্চিত করে সংবাদ প্রচার করতে হবে।
দৈনিক মুখপাত্রের সম্পাদক শেখ জামাল তার বক্তব্যে বলেন, সহনশীলতার‌ সাথে সাংবাদিকতা করতে হবে।তিনি নবীন সদস্যদের সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাসও প্রদান করেন।

দৈনিক ভোরের পাতা ও দি পিপলস টাইমস এর উপসম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন চিশতি তার বক্তব্যে নবীন সাংবাদিকদের শুভ কামনা জানান এবং নবীন সাংবাদিকদের সততা ও সাহসিকতা নিয়ে সাংবাদিকতা করার আহবান জানান।তিনি নবীনদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন আপনারা কারো দ্বারা প্রভাবিত না হয়ে সব সময় সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করবেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড আবুল কাশেম চৌধুরী বলেন, সাংবাদিকতাকে শুরুতেই নিজের পেশা নয় বরং শখ হিসেবে নিতে হবে। নিজস্ব কাজ এবং জ্ঞান অর্জনের মধ্য দিয়ে পরবর্তীতে সকলের শ্রদ্ধার পাত্র হয়ে উঠার চেষ্টা করতে হবে।