নিরাপদে নেই জবির নিরাপত্তা প্রহরীরা

  • 01 May
  • 04:58 PM

মো: শাহারিয়ার, জবি প্রতিনিধি 01 May, 21

বৈশ্বিক মহামারীর জন্য সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির কারণে দেশের অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতো বন্ধ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ও। ফলে জনমানবহীন হয়ে পড়ে আছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, এই জনমানবহীন ক্যাম্পাসে দায়িত্ব পালনে সদা তৎপর নিরাপত্তা প্রহরীরা। সবার ছুটি মিললেও, মেলেনি তাদের।অথচ নিরাপত্তা দায়িত্ব পালনকারী এই নিরাপত্তা প্রহরীর নাই নিরাপদে। করোনাকালে তাদের দেওয়া হয়নি কোনো সুরক্ষা সামগ্রী।

এর আগে গত বছরের মার্চের ৮ তারিখে দেশে প্রথম করোনা সনাক্ত হবার পর, সংক্রামণ আরো বাড়তে থাকাই চলতি মাসের ১৮ ই মার্চ ২০২০ বন্ধ হয়ে যায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি)। ফলে শিক্ষাক,শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনেকই বাড়ি ফিরে যাওয়াই জনমানব শূন্য ক্যাম্পাস এ দেখা দেয় নিরাপত্তাহীনতা। তখন থেকেই নিরলস দায়িত্ব পালন করে আসসে জবি নিরাপত্তা কর্মীরা।

জানা যায়, বর্তমানে ২২ জন নিরাপত্তাকর্মী বিশ্ববিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। যাদের মধ্যে স্থায়ী নিয়োগপ্রাপ্ত এবং অস্থায়ী নিয়োগে কাজ করছেন।

স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে নিরাপত্তা দায়িত্ব পালনের পরও কোনো ধরনের সুরক্ষা সামগ্রী ও আর্থিক নিশ্চয়তা না পাওয়ায় অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে নিরাপত্তাকর্মীদের মাঝে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নিরাপত্তা কর্মী বলেন, ‘আমাদেরকে এখন পর্যন্ত কোনো স্বাস্থ্যসামগ্রী দেয়া হয়নি। তবে আমরা যারা অতিরিক্ত কাজ করছি তাদেরকে ওভারটাইম দেয়া হচ্ছে। করোনায় বিভিন্ন পেশার লোকজন প্রণোদনা বা ঝুঁকি ভাতা পাচ্ছেন। কিন্তু এ সংকটের মধ্যেও যারা ক্যাম্পাসকে নিরাপদ রাখছেন, এখন পর্যন্ত তাদেরকে করোনাকালীন কোনো ধরনের সুবিধা প্রদান করা হয়নি। আমরা আশা করি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যথাযথ পদক্ষেপ নিয়ে বিষয়টি বিবেচনা করবেন’।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ বলেন, গত বছর সুরক্ষাসামগ্রী নিয়ে আমাদের প্লান ছিল না। কিন্তু প্রয়োজন হলে অবশ্যই সিকিউরিটি শাখার সাথে কথা বলে সুরক্ষাসামগ্রী প্রদান করা হবে। তবে তাদের ঝুঁকি ভাতার জন্য নথি উপস্থাপন করা হয়েছে। গতবারও তাদেরকে এই ভাতা প্রদান করা হয়েছে।