নারী নির্যাতন রোধে আইনের প্রয়োগ জরুরী

  • 31 Aug
  • 09:04 PM

ফারজানা ইয়াসমিন 31 Aug, 21

আমাদের দেশে নারীর ক্ষমতায়ন বা নারীর উন্নয়ন নিয়ে প্রতিনিয়ত অনেক কথা হয়ে থাকে। সুখবরও আছে অনেক। কিন্তু বিপরীত দিকের চিত্রটি বলতে গেলে অনেকটা ভয়াবহ। ঘরে-বাইরে বলতে গেলে সর্বত্র চলছে নারী নির্যাতন ও নারীর প্রতি সহিংসতা। বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রেও নারীরা পিছিয়ে।

নারীর প্রতি নির্যাতন ও সহিংসতা নিত্যদিনের ঘটনা।গণমাধ্যমে চোখ রাখলেই দেখা যায় কোথাও না কোথাও নারীর প্রতি শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটে থাকে। কিন্তু অনেক ঘটনাই থেকে যায় অন্তরালে। লোকলজ্জার ভয়ে অনেক ঘটনা চাপা পড়ে যায়। ফলে এসব নির্যাতনের বিরুদ্ধে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা হয় না।

নারী নির্যাতনের মাত্রা দিন দিন ভয়াবহভাবে বেড়ে চলেছে। বিরামহীনভাবে চলছে ধর্ষণ। স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এমনকি মাদ্রাসায়ও চলছে ধর্ষণসহ নানারকমভাবে নারী নির্যাতন। শিক্ষকতার মহান দায়িত্বে থাকা মানুষটিও নাম লিখাচ্ছেন ধর্ষকের খাতায়। বহু নারী লুকিয়ে রাখছে তাদের নির্যাতনের খবর। অনেক নির্যাতিত ধর্ষিতা নিরবে কেঁদে যাচ্ছে বছরের পর বছর। আজকের দিনে ধর্ষণ, নির্যাতন মহামারীর রূপ ধারণ করেছে। এ অবস্থা থেকে আমাদের সমাজকে রক্ষা করতে হবে, বাঁচাতে হবে জাতিকে।

নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিচার করতে না পারলে নারী নির্যাতন সমাজে বেড়ে যাবে। আর বিচারহীনতা ও ন্যায়বিচারের অভাবে একটি সমাজ ধীরে ধীরে অপরাধপ্রবন হয়ে উঠে। এই প্রবনতা দূর করতে হলে সর্বাগ্রে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে হবে। সেই সাথে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। শুধু আইনে থাকলেই নারী নির্যাতন প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। আইনের সঠিক প্রয়োগ জরুরী। সেই সাথে নারীদের শিক্ষা, ক্ষমতায়ন ও সামাজিক সচেতনতা জরুরী। সর্বপরি নারীর নির্যাতন ও সহিংসতা দূর করতে আইনের প্রয়োগ অত্যন্ত জরুরী।এক্ষেত্রে জাতীয় কর্মপরিকল্পনার প্রত্যাশিত বাস্তবায়ন প্রয়োজন।


-
লেখক : ফারজানা ইয়াসমিন
শিক্ষার্থী, প্রথম বর্ষ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়