নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের বিবৃতি স্বাধীন গণমাধ্যমের জন্য হুমকিস্বরূপ: বঙ্গবন্ধু পরিষদ

  • 28 July
  • 11:21 AM

বেরোবি প্রতিনিধি 28 July, 20

সম্প্রতি বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুটিকয়েক নবীন শিক্ষকদের সংগঠন ‘নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ’র বিবৃতি এবং তৃতীয় শ্রেনীর এক কর্মচারি খোরশেদ আলম কর্তৃক শিক্ষার্থী সাংবাদিকদের কটূক্তির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু পরিষদ।

মঙ্গলবার দুপুরে বেরোবি বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি কমলেশ চন্দ্র রায় ও সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমানের পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তারা।

এই বিবৃতি স্বাধীন ও মুক্ত গণমাধ্যমের জন্য কণ্ঠরােধী, অনৈতিক, অনভিপ্রেত ও অনধিকার চর্চা বলে উল্লেখ করে সংগঠনটি বলেন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন গণমাধ্যমের অবাধ স্বাধীনতা ও সম্প্রসারমান যুগে প্রবেশ করেছে, ঠিক তখন বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুরে নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ নামক কিছু নতুন শিক্ষকদের সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে অনৈতিক ও অনধিকার চর্চা করা সত্যিই অত্যন্ত নিন্দনীয়। যাহা বর্তমান সরকারের কষ্টার্জিত স্বাধীন গণমাধ্যমের হুমকিস্বরূপ।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, করােনার এই প্রাদুর্ভাবকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যখন দেশের মানুষকে রক্ষা করার জন্য দিনের পর দিন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তখন বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুরের উপাচার্য মহােদয়ের প্রত্যক্ষ পৃষ্ঠপােষকতায় নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ পরিকল্পিতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়কে উত্তপ্ত করার জন্য সাংবাদিকদের নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও উদ্ভট মন্তব্য করার ধৃষ্টতা দেখায়। বঙ্গবন্ধু পরিষদ বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর সাংবাদিকদের নিয়ে এরকম ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও উদ্ভট মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ এবং নিন্দা জ্ঞাপন করছে।

এ ছাড়া বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পি এ টু পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক খােরশেদ আলম শিক্ষার্থীদের নিয়ে যে কটুক্তিপূর্ণ মন্তব্য করেছেন তারও তীব্র প্রতিবাদ এবং নিন্দা জ্ঞাপন করেছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ।

বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়কে পরিকল্পিতভাবে উত্তপ্ত করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে যাতে বেকায়দায় ফেলতে না পারে সেজন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষা উপমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ।