ধর্ষণ বিরোধী মানববন্ধনে ডিআইইউ শিক্ষার্থীকে হয়রানি

  • 06 Oct
  • 10:12 PM

ইসরাত জাহান, ডিআইইউ প্রতিনিধি 06 Oct, 20

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক গৃহবধুকে মধ্যযুগীয় কায়দায় বিবস্ত্র করে নির্যাতন এবং গনধর্ষণ করা হয়। এই ন্যক্কারজনক কাজের ভিত্তিতে নোয়াখালী বেগমগঞ্জ সহ সারাদেশে চলমান একের পর এক ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-ডিআইইউ এর শিক্ষার্থীরা।

আজ মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১টা পযর্ন্ত নতুন বাজার, ভাটারা থানার সামনে রাস্তা অবরোধ করে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ স্বরূপ হাতে বিভিন্ন স্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নেন। কিন্তু সাধারণ মানুষের জন্য সংগঠিত হওয়া এ শান্তিপূর্ণ এ আন্দোলনের প্লাকার্ডকে এডিট করে সেখানে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নামে বিকৃত মন্তব্য করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থীরা।

মানববন্ধন থেকে তারা ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড এবং ‘ধর্ষণ মুক্ত বাংলাদেশ চাই, তিন মাসের মধ্যে ধর্ষকের ফাঁসি চাই’ এই সব দাবি জানালেও কুচক্রীমহল এই শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে বিকেন্দ্রীকরণ করেছে বলে দাবী করেছেন ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সজীব হাসান৷

এ সম্পর্কে সজীব হাসান জানান, আমাদের আজকের মানব বন্ধনের মূল বিষয় ছিল " ধর্ষণ মুক্ত সমাজ চাই ৯০ দিনের মধ্যে আসামির ফাঁসি চাই"। কিন্তু
কিছু কুচক্রী মহল এই আন্দোলনকে রাজনৈতিক আন্দোলনে রূপ দেওয়ার জন্য এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এবং ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য আমাদের ছবিগুলো এডিট করেছে পরিবর্তে ব্যবহার করেছে দেশদ্রোহীতার নানা স্লোগান।

আমি ব্যাক্তিগতভাবে এসব নিচু মানসিকতার কার্যক্রমের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।সাথে সাথে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে অনুরোধ জানাই অনতিবিলম্বে অনুসন্ধান এবং উদ্দেশ্যে প্রনোদিতভাবে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সমৃদ্ধ রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে প্রশ্নবিদ্ধ করার ঘটনার সাথ জড়িতদের আইনের আওতায় আনার জন্য অনুরোধ জানাই৷"