করোনার দুর্দিনে শিক্ষার্থীদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে পবিপ্রবির এনিম্যাল হাজবেন্ড্রী পরিবার

  • 13 May
  • 07:09 PM

মেহেদী হাসান, পবিপ্রবি প্রতিনিধি 13 May, 20

চীনের উহান শহর থেকে উৎপত্তি হয়ে এখন সারা বিশ্বকে থমকে দিয়েছে করোনা ভাইরাস। ছোঁয়াচে এই ভাইরাসের প্রতিষেধক এখনো আবিষ্কার না হওয়ায় সাধারণ নিরাপত্তা হিসেবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাকে আর্দশ ধরে সারাবিশ্ব এখন লক ডাউনে আবদ্ধ। স্বাভাবিকভাবে বাংলাদেশেও করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় লক ডাউন করা হয়েছে পুরো বাংলাদেশকে।

এমন পরিস্থিতিতে সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে এগিয়ে এসেছে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এএনএসভিএম অনুষদের এনিম্যাল হাজবেন্ড্রী পরিবার। পশুপালন ডিসিপ্লিনের বিভিন্ন শিক্ষক,সাধারণ শিক্ষার্থী এবং এলামনাই এসোসিয়েশনের সহযোগিতায় গঠন করা হয়েছে একটি ফান্ড যার মূল উদ্দেশ্যই হলো এই দুঃসময়ে ডিসিপ্লিনের কোন শিক্ষার্থী যেন কোন সমস্যায় না ভোগে। এই ক্রান্তিলগ্নে একটি পরিবারের মতো সবাই সবার পাশে দাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা থেকেই প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে "এ.এইচ.এস.এ(এনিম্যাল হাজবেন্ড্রী স্টুডেন্টস' এসোসিয়েশন) এবং এ.এইচ.এ.এ(এনিম্যাল হাজবেন্ড্রী অ্যালামনাই এসোসিয়েশন) হেল্প ফান্ড"।
এই ফান্ডে মোট তিনটি পর্যায়ে ৩৩৯৬৫ টাকা জমা পড়ে এবং ১৭ জন শিক্ষার্থীকে এই ফান্ড থেকে সহযোগিতা করা হয়।

এই ফান্ডের ব্যাপারে এনিম্যাল হাজবেন্ড্রী স্টুডেন্টস'এসোসিয়েশন এর ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ মারুফ বিল্লাহ এর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি ভার্সিটি ভয়েসকে জানান, "লকডাউনের কারনে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এ্যানিমেল সায়েন্স এন্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেকেই আর্থিকভাবে অস্বচ্ছলতায় ভুগলেও বাইরে থেকে বেশিরভাগই কোন সহয়তা পাচ্ছিলো না।বিষয়টি অনুধাবন করার পর এ্যানিমেল হাজবেন্ড্রি স্টুডেন্টস' এসোসিয়েশন একটি হেল্প ফান্ড গঠনের উদ্যোগ নেয়।শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলামনাই এর আন্তরিক প্রচেষ্টায় আমরা ১৭ জন শিক্ষার্থীকে নাম পরিচয় গোপন রেখে সহায়তা করছি এবং ভবিষ্যতে এ সহায়তা কার্যক্রম চালু থাকবে। আমরা চাই যেকোন সময়ে যেকোন দুর্দিনে আমরা এভাবেই একে অপরের পাশে থাকব একটি পরিবারের মতো।"