দুগ্ধ শিল্পে বিনিয়োগকারীদের স্বল্প সুদে ঋণ দেওয়া হবে - মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

  • 02 June
  • 02:18 PM

আতিকুর রহমান, বাকৃবি প্রতিনিধি 02 June, 21

সরকার চায় বাংলাদেশে বেসরকারি পর্যায়ের উদ্যোক্তরা গুড়োদুধ পণ্য উৎপাদনে এগিয়ে আসুক। এতে করে গুড়ো দুধের আমদানি কমে যাবে। ডেইরি ফার্ম উদ্যোক্তাদের যাতে শুরতেই কর দিতে না হয়, সরকারের পক্ষ থেকে সে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি দুগ্ধ শিল্পে বিনিয়োগকারীদের স্বল্প সুদে ও সহজ শর্তে ঋণ প্রদান করা হবে।

মঙ্গলবার (০১ জুন) রাতে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস ২০২১ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেইরি বিজ্ঞান বিভাগ আয়োজিত ওয়েবিনারে রাজধানীর বেইলি রোডের সরকারি বাসভবন থেকে সংযুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এসব কথা জানান।

এসময় তিনি বলেন, গুঁড়ো দুধ আমদানি সরকার নিরুৎসাহিত করছে। যারা গুঁড়ো দুধের শিল্প বাংলাদেশে স্থাপন করতে চান তাদের যন্ত্রপাতি আমদানিতে উৎসে কর এবং অপরাপর সমস্যা দূর করে দেওয়া হবে। প্রয়োজনে এ শিল্পকে প্রাথমিক অবস্থায় কর অবকাশ সুবিধা প্রদানের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ খাতের উদ্যোক্তাদের আয়কর সুবিধা প্রদানের বিষয়টিও বিবেচনা করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চান বেসরকারি উদ্যোক্তারা এগিয়ে আসুক। এজন্য তিনি দেশে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছেন।

এসময় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান বলেন, পুষ্টি বিবেচনায় দুধের কোনো বিকল্প নেই। খামারীদের যদি আরো সহযোগিতা করা যায়, তাহলে আগামীতে দুধ উৎপাদন কয়েক গুণ বাড়বে। দুধ উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য গাভীর জাত উন্নয়ন খুবই প্রয়োজন। আমরা যদি একটি পরিপূর্ণ রোডম্যাপ তৈরী করে এগুতে পারি, খুব দ্রুতই আমরা এ সেক্টরে আরো উন্নয়ন ঘটাতে পারব।

বাকৃবি ডেইরি বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. রায়হান হাবিবের সভাপতিত্বে এবং অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সোহেল রানা সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় ওয়েবনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম (এমপি)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. রওনক মাহবুব। ওয়েবনারের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি ভিসি অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি পশুপালন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ কে ফজলুল হক ভুইয়া, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা শেখ আজিজুর রহমান, বিএলআরআইয়ের মহাপরিচালক ডা মো আব্দুল জলিল, বাকৃবি ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড, এ কে এম জাকির হোসেন এবং বাংলাদেশ অ্যানিমেল হাজবেন্ড্রি এসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নুরুল ইসলাম। ওয়েবনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ড. মো. হারুন-অর-রশিদ ও শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আশিকুল ইসলাম।