ডামুড্যায় ৬৬ টি পরিবারের খাদ্য সহায়তায় 'মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন'

  • 20 May
  • 07:41 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক 20 May, 20

করোনার নিষ্ঠুর আঘাতে সারা পৃথিবী যখন স্থবির, যখন অর্ধাহারে -অনাহারে দিন কাটাচ্ছে দেশের কর্মহীন মধ্যবিত্ত, নিম্নমধ্যবিত্ত এবং নিম্নবিত্তের মানুষেরা। যখন মানুষের কাছে আবেদন হারিয়েছে পৃথিবীর সপ্তম আশ্চার্য।ঠিক তখনই মানবতার হাত বাড়িয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে "মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন"।

গতকাল (১৮-০৫-২০২০) শরিয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার চরভয়রা ইউনিয়নের ৭ টি গ্রামের ৬৬ টি অসহায় পরিবারের মাঝে "মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের" পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী রাজু আহমেদ।

গতকাল "মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের" প্রেরণকৃত অর্থের উপহার সামগ্রী চরভয়রা ইউনিয়নের ৬৬ টি পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয় চরভয়রা ইউনিয়নের ২ টি স্পটে। ১ম স্পটে বেপারি পাড়া,মাল পাড়া,শিব কান্দি,দর্জি কান্দিসহ মোট ৫ টি গ্রামের এবং ২য় স্পটের চরভয়রা এবং দায়মী চরভয়রার ২ টি গ্রামের অসহায় কর্মহীন দিনমজুর , এতিম, প্রতিবন্ধী, বিধবা,ভ্যানচালক, কৃষকসহ অন্যান্য পরিবারের মাঝে খাদ্য উপহার বিতরণ করা হয়। উপহার গ্রহণকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং ব্যাক্তিগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করে উপহারগ্রহণকারীরা উপহার গ্রহণ করে।উল্লেখ্য যে, এর আগে শরিয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলার ৬৫ টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে ফাউন্ডেশনটি।

উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিল চাল-৬কেজি, আলু-২কেজি, আটা-১ কেজি, লবন-১কেজি, ঢেড়শ -১ কেজি এবং সাবান ১ টি। "মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন" কর্তৃক প্রদানকৃত উপহার পেয়ে চরভয়রা ইউনিয়নের ৭ টি গ্রামের মানুষ আন্তরিক কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছে এবং দেশের ক্রান্তিকালে তাদের পাশে এভাবেই দাঁড়ানোর আবেদন জানিয়েছে।

উপহার সামগ্রী বিতরণের পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করেছে "মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের" শরিয়তপুরের স্বেচ্ছাসেবক রাজু আহমেদ এবং তাকে সার্বিকভাবে দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ দিয়েছে মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের ভলান্টিয়ার কো-অর্ডনেটর ইন বাংলাদেশ শাকিল আনোয়ার। তাছাড়াও সহযোগীতায় ছিলেন রফিজল মৃধা,ইমরান আহমেদ, মারিয়ান রহমান, সোলাইমান সুজন এবং সাওন আহমেদসহ আরো অনেকে।

প্রসঙ্গত "মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন" একটি আমেরিকান ভিত্তিক বাংলাদেশি সংগঠন। সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ড.চন্দ্র নাথ। তিনি বুয়েট থেকে পড়াশুনা করে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ম্যানুফ্যাকচারিং হাই-টেক স্টার্ট আপ "মেইকার" কোম্পানির কো-ফাউন্ডার এবং সিটিও হিসেবে কর্মরত আছেন। তাছাড়াও স্বনামধন্য পারডু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজিটিং স্কলার হিসেবে কাজ করছেন। বাংলাদেশে শিক্ষা, চিকিৎসা সহায়তা ও জরূরী ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে সংগঠনটি সারা দেশ ব্যাপী সুনাম কুড়িয়েছে।