খুলনায় ৬৮টি ইউনিয়নের ১৭ হাজার পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা প্রদান

  • 12 May
  • 05:05 PM

মোঃ ইকবাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি 12 May, 21

আসন্ন ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে খুলনার ৬৮টি ইউনিয়নের ১৭ হাজার পরিবারকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মানবিক সহায়তা হিসেবে ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় বিকাশ পেমেন্টের মাধ্যমে অর্থ সাহায্য প্রদান করা হয়েছে।

আজ (বুধবার) মাহে রমজান ও আসন্ন ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে খুলনা জেলার ৬৮টি ইউনিয়নে দরিদ্র্য ও দুঃস্থ পরিবারের সাহায্যার্থে ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় বিকাশ এর মাধ্যমে সরাসরি মানবিক সহায়তা প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক বরাদ্দকৃত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা খুলনার সকল (৯ টি) উপজেলার মোট ১৭ হাজার পরিবারকে প্রদান করা হয়। খুলনা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং বিকাশ এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা প্রদান কার্যক্রমের মাধ্যমে ১৭ হাজার দরিদ্র্য ও দুঃস্থ পরিবারকে এই অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়। প্রতিটি পরিবারের জন্য ১ হাজার টাকার অর্থ সহায়তা ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় বিকাশ এর মাধ্যমে সরাসরি উপকারভোগীর একাউন্টে প্রেরণ করা হয়েছে। এতে খুলনার ৬৮টি ইউনিয়নের প্রতিটি ইউনিয়নে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা করে মোট ১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক, খুলনা’র সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই মানবিক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে জুম অ্যাপের মাধ্যমে সংযুক্ত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব ডা: মোঃ এনামুর রহমান, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে জুম অ্যাপে সংযুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ এবং খুলনা-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব পঞ্চানন বিশ্বাস, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব জনাব মোঃ মোহসীন, বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা জনাব মোঃ ইসমাইল হোসেন এনডিসি এবং খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও খুলনা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব শেখ হারুনুর রশীদ। অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সর্বশেষ নির্বাচনী ইশতেহার এবং সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের দলিল ‘প্রেক্ষিত পরিকল্পনা-২০৪১’-এর সুস্পষ্ট নির্দেশনা অনুযায়ী সরকারি সকল সেবা ও কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণ এবং দক্ষতা বৃদ্ধিতে সারা দেশব্যাপী চলছে নানামুখী উদ্ভাবনী উদ্যোগ ও ডিজিটালাইজেশনের কর্ম প্রচেষ্টা। ডিজিটালাইজেশনের ক্ষেত্রে তেমনই এক উদ্ভাবনী উদ্যোগ, খুলনা জেলা প্রশাসকের ব্রেইন চাইল্ড ‘ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় বিকাশের মাধ্যমে কোন রকম সার্ভিস চার্জ কর্তন ছাড়াই শতভাগ উপকারভোগীর মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা প্রদান’ যা খুলনা জেলায় সফলতার সাথে এবং স্বচ্ছতা বজায় রেখে সম্পাদিত হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব ডা: মো: এনামুর রহমান প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, "সরকার দুঃস্থ, দরিদ্র্য ও খেটে খাওয়া মানুষের পাশে সব সময় সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ডিজিটাল উপায়ে বিকাশের মাধ্যমে কোনরকম সার্ভিস চার্জ কর্তন ছাড়াই দরিদ্র্যদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের ভূয়সী প্রশংসা করেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী। তিনি এমন উদ্যোগ সকল জেলায় অনুকরণেরও আহবান জানান।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব জনাব মো: মোহসীন তাঁর বক্তব্যে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ সহায়তা প্রদানের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, "এতে একদিকে উপকারভোগীরা যেমন দ্রুত সেবা পাচ্ছে অন্যদিকে সকল প্রান্তিক মানুষ ডিজিটাল সেবার আওতায় আসছেন।"

বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা তাঁর বক্তব্যে খুলনা জেলা প্রশাসন কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন ব্যতীক্রমধর্মী উদ্যোগের প্রশংসা করেন এবং বিকাশের মাধ্যমে উপকারভোগীদের নিকট অর্থ সহায়তা প্রদানের যে উদ্যোগ তারও সফলতা কামনা করেন। জেলা প্রশাসক, খুলনা মোহাম্মদ হেলাল হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন, "এবার মাহে রমজান ও আসন্ন ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা সরাসরি উপকারভোগীর বিকাশ একাউন্টে চলে যাচ্ছে যাতে উপকারভোগীরা উপকৃত হবেন। এতে উপকারভোগীদের সেবা যেমন দ্রুত নিশ্চিত হচ্ছে তেমন স্বচ্ছ সেবা প্রদান এবং সময় ও শ্রমকে অধিকতর কার্যকরীভাবে ব্যবহারের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্ন আরো দৃঢ় অগ্রযাত্রায় ধাবিত হচ্ছে।"

অর্থ সহায়তা বিতরণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন উপপরিচালক, স্থানীয় সরকার, খুলনা জনাব মো: ইকবাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), খুলনা জনাব মো: ইউসুপ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি), খুলনা জনাব মো: সাদিকুর রহমান খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এল.এ.), খুলনা জনাব মো: মারুফুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), খুলনা মোছা: শাহানাজ পারভীন এবং খুলনা মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এমডিএ বাবুল রানা। এছাড়াও খুলনার প্রতিটি উপজেলা থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ উপকারভোগী পরিবার, স্ব-স্ব উপজেলার বিকাশের এরিয়া ম্যানেজার এবং উপজেলাসমূহের বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগণকে নিয়ে জুম অ্যাপে সংযুক্ত ছিলেন।