নিয়মিত কয়েক হাজার অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে 'সাধারণ'

  • 11 May
  • 09:16 AM

মাহমুদ জয়, বেরোবি প্রতিনিধি 11 May, 20

করোনার প্রাদুর্ভাবে দিশেহারা পুরো বিশ্ব। দেশের প্রায় সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে আছে প্রায় দুই মাস। এমন পরিস্থিতিতে ভেঙ্গে পরেছে অর্থনৈতিক ব্যবস্থা। বেড়েই চলছে কর্মহীন মানুষের সংখ্যা।
এমতাবস্থায় কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলায় এক অভিনব পদ্ধতির মাধ্যমে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে "সাধারণ" নামক একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন এ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের পরামর্শক সালমান হাসান ডেভিড (মারজান) এর উদ্যোগে প্রায় ১৮টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহ ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত হয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন "সাধারণ"। সংগঠনটি ইতিমধ্যে প্রায় ৪৭০০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। সাধারণ সংগঠনের আওতায় ৫৫০০ স্বেচ্ছাসেবক উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে কাজ করে যাচ্ছে।

জানা যায়, সরকারের পক্ষ থেকে উপজেলায় খাদ্য সহায়তা সহ বিভিন্ন সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। এই সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠীর বাইরে যে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী সুবিধা সেবা পাচ্ছে না তাদের ই খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে " সাধারণ" সংগঠনটি। সংগঠনটির ভলান্টিয়ারদের মাধ্যমে সরকারি সুবিধা আওতার বাইরে থাকা মানুষগুলোর তালিকার মাধ্যমে তাদের খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে ।
সংগঠনটি এসব খাদ্য সহায়তা "দেশরত্ন হাসিনার উপহার" নামে বিতরণ করছে।
'সাধারণ' সংগঠনটি ধারাবাহিক ভাবে ৩৫০-৪০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা করে আসছে গত ২ এপ্রিল ২০২০ থেকে। সারাদিন সংগঠনটির ভলান্টিয়ারদের মাধ্যমে এসব উপহার সামগ্রী প্যাকেট করা হয়ে থাকে। পরবর্তীতে রাতের আধারে সেহরীর আগ মুহুর্ত অব্দি উপহার সামগ্রীগুলো বিতরণ করা হয়ে থাকে বাড়ী বাড়ী গিয়ে।

সংগঠনটির পৃষ্ঠপোষকতা করছেন, সালমান হাসান ডেভিড (পরামর্শক,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন এ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়), অধ্যাপক এম.এ. মতিন (সংসদ সদস্য, কুড়িগ্রাম-৩) সহ স্বল্প পরিসরে আরো অনেকে।

এ বিষয়ে সালমান হাসান ডেভিডের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,"করোনার এই সংকটকালীন মুহূর্তে মানুষকে কিছুটা সাহায্য করার উদ্দেশ্যেই 'সাধারণ' এর প্রতিষ্ঠা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে এই সংকট মোকাবিলা করছেন তাকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েই আমাদের এই উদ্যোগ গ্রহণ। এ কারণে তাঁর নামেই আমরা এই উপহার সামগ্রী বিতরণ করছি। আমাদের এই কার্যক্রম সাধ্যমত আমরা অব্যাহত রাখব আগামীতে যতদিন করোনার এই সংকটময় পরিস্থিতি থাকবে।"

এছাড়া তিনি সংকটকালীন এই মুহূর্তে সমাজের বিত্তবানদের স্ব স্ব অবস্হান থেকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।