বরিশালে অনুষ্ঠিত হলো বাংলাদেশের প্রথম নারী এআই কর্মী সমাপনী অনুষ্ঠান

  • 16 Dec
  • 11:10 PM

পবিপ্রবি প্রতিনিধি 16 Dec, 20

বরিশালে ব্র্যাক লার্নিং সেন্টারে আয়োজিত বাংলাদেশের প্রথম নারী এআই কর্মীদের প্রশিক্ষণের সমাপনী ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠান কর্মসূচী মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর ২০২০) অনুষ্ঠিত হয়েছে। নারীদের আত্মকর্মী হিসেবে গড়ে তোলা ও তাদের অর্থনৈতিক কাজের সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বারিশালে দুই-মাসব্যাপি নারী এআইকর্মীদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচী ব্র্যাক আর্টিফিশিয়াল ইনসেমিনেশন (এআই)এন্টারপ্রাইজ লিমিটেডের তত্বাবধানে এবং ইউএসএআইডি’র ফিড দ্যা ফিউচার বাংলাদেশ লাইভস্টক ফর ইম্প্রুভড নিউট্রিশন প্রকল্প এবং এসিডিআই/ভোকা'র সার্বিক সহায়তায় আয়োজিত হয়েছে। প্রশিক্ষণটি পরিচালনা করেছে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক্স অ্যান্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগ। প্রশিক্ষণে খুলনা, যশোর,সাতক্ষীরা, ফরিদপুর, চট্রগ্রাম, কক্সবাজার ও বরিশাল জেলা থেকে মোট ১৯ জন নারী এআই কর্মী অংশ নেয়।তাত্ত্বিক জ্ঞানের পাশাপাশি প্রশিক্ষণে এআই কৌশলগুলির ব্যবহারিক দিকের উপর প্রাধান্য দিয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। প্রশিক্ষণ শেষ হওয়ার পরে ব্র্যাক নতুন এই নারী এআই কর্মীদের মাঠে সফলভাবে কাজ করার জন্য স্থানীয় প্রাণিসম্পদ অফিস এবং সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডার যেমন ফিড কোম্পানি, ভেটেরিনারি মেডিসিন কোম্পানি, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ইত্যাদির সাথে সংযোগ করে দিবে। একই সাথে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য এআইকর্মীরা সংশ্লিষ্ট ব্র্যাকের এরিয়া সেলস্‌ সেন্টারে এক মাসের ইন্টার্ণশিপের সুযোগ পাবে।
সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. মোঃ মামুন অর রশিদ, মাননীয় ডিন, এ্যানিমাল সায়েন্স এন্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদ, পবিপ্রবি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. কাজী শারমীন আক্তার, সহযোগী অধ্যাপক ও কোর্স কো-কোঅর্ডিনেটর, জেনেটিক্স এন্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগ, ডাঃ মোঃ শওকত আলী, ন্যাশনাল সেলস্ ম্যানেজার, ব্র্যাক এআই এন্টারপ্রাইজ, এবং ডাঃ মোঃ মতিউর রহমান, ম্যানেজার, ব্র্যাক এআই এন্টারপ্রাইজ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ড. মোঃ ফখরুজ্জামান, সহযোগী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান এবং কোর্স কো-অর্ডিনেটর, জেনেটিক্স এন্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগ, পবিপ্রবি। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মোঃ আশরাফুল ইসলাম, আরএসএম, ব্র্যাক এআই এন্টারপ্রাইজ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলেই ব্র্যাক এবং ইউএসএআইডি’র এই যৌথ পদক্ষেপের সফলতা কামনা করেন।এমন উদ্যোগের মাধ্যমে একদিকে যেমন গ্রামে গঞ্জে গবাদি প্রাণিসম্পদের উন্নতি হবে অপরপক্ষে ত্বরান্বিত হবে নারীদের আত্মকর্মসংস্থান।