গ্রামীণ করোনা সচেতনতায় কাজ করছে মেডিকেল শিক্ষার্থী

  • 09 Apr
  • 03:46 AM

ভার্সিটি ভয়েস ডেস্ক 09 Apr, 20

রংপুর মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ সাব্বির হাসান রাব্বি তার গ্রাম পীরগন্জের চকভেকায় করোনা বিষয়ক গ্রামীন জনসচেতনতায় কাজ করছেন।

ভার্সিটি ভয়েস প্রতিনিধি রাব্বিকে জিজ্ঞেস করা হয়, আপনি কিভাবে গ্রামের মানুষদের সচেতন করছেন?
রাব্বি বলেন, "আমার গ্রাম চকভেকা রংপুর জেলায় অবস্থিত একটি ছোট্ট গ্রাম। গ্রামের অধিকাংশ মানুষই অশিক্ষিত কিংবা অর্ধশিক্ষিত এবং বেশিরভাগ বয়স্ক মানুষদের মাঝে ধমার্ন্ধতার প্রকোপ ভীষণভাবে লক্ষ্য করা যায় সর্বপরি। আমি চেষ্টা করেছি তাদেরকে সর্বপরি করোনা প্রতিরোধে আমাদের করণীয় প্রসঙ্গে জানাতে।এজন্য আমি গতকাল (৮ এপ্রিল, ২০২০) রোজ বুধবার সন্ধ্যায় গ্রামের যুবক ছেলে ও গন্যমাণ্য ব্যক্তিদের (শিক্ষক, মসজিদের ঈমাম, মোয়াজ্জেম, সাধারণ বয়স্ক ব্যক্তি) নিয়ে যথাসম্ভব সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে করোনা বিষয়ক একটি সেমিনারের আয়োজন করেছিলাম এবং সেমিনার শেষে সবার মতামত নিয়ে কিছু কর্মপরিকল্পনা কিছু নিয়েছিলাম।
কর্মপরিকল্পনা গুলো ছিলঃ
১।গ্রামে প্রবেশের মেইন পয়েন্ট গুলো বাশ দিয়ে লকডাউন করে চলাচল সীমিত করা।
২।সম্পূর্ণ গ্রামে জীবানুনাশক স্প্রে করা।
৩।বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে গ্রামের মানুষদের যথাসম্ভব সচেতন করা।
৪।ঢাকা থেকে যারা গ্রামে এসেছেন তাদের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা।

এবং তারই সুবাদে আজ (৯ এপ্রিল, ২০২০) রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকায় গ্রামে প্রবেশের মেইন পয়েন্টগুলো লকডাউন করে চলাচল সীমিত করা হয়েছে। সারা গ্রামে প্রত্যেকটি বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে জীবানুনাশক স্প্রে করা হয় এবং তাদের করোনা বিষয়ে সচেতন করা হয়। বিশেষ মসজিদ, দোকানের সামনের বসার টং, স্কুল, বাড়ির গেইটে জীবানুনাশক স্প্রে করা হয়।আমার এসব কাজে গ্রামের যুবক ছেলেরা বিশেষ করে হেলাল, মিন্টু, সুজন, নাহিদ, রায়হান, হাসু, রকিসহ অনেকে সহযোগিতা করেছেন।
আসলে ছোটখাটো এসব কার্যক্রমের মাধ্যমেই যে করোনা প্রতিরোধ সম্পূর্ণ ভাবে সম্ভব তা কিন্ত নয় আমি শুধু চেষ্টা করেছি গ্রামের সাধারণ মানুষকে সর্বপরি সচেতন করতে।"