ইবি শিক্ষক বিকুলের দুই গ্রন্থ প্রকাশ

  • 13 Dec
  • 08:44 PM

আজাহার ইসলাম, ইবি প্রতিনিধি 13 Dec, 20

অমর ২১শে বইমেলা ২০২১ উপলক্ষে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বাকী বিল্লাহ বিকুলের দুইটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। যার মধ্যে কাব্যগ্রন্থটির নাম ‘আলো অন্ধকারে যায়’ এবং প্রবন্ধের বইয়ের নাম ‘কথাসাহিত্য ও কবিতা: ভাবনার অন্তঃস্বর’।

জানা গেছে, কাব্যগ্রন্থে বৈশ্বিক মহামারির দিকটি ফুটিয়ে তুলেছেন লেখক। করোনাক্রান্ত বিশ্বে দুঃসহ ও দুর্বহ সময় অতিক্রান্ত করছে বিশ্ব মানবসমাজ। মানবজাতির এমন অসহায়ত্ব ক্রন্দন ধ্বনি কমই দেখেছে চলমান পৃথিবী। এমন মহামারীর দিনে কবির কলম থেকে মানুষের কষ্ট-দুঃখ-বেদনার ছবি ফুটে উঠেছে।

কিন্তু কবি তাঁর এ কাব্যগ্রন্থে কেবলমাত্র সেসব বিষয়ের ছবি অঙ্কন করে, শব্দবাক্য নির্মাণ করেই থেমে যাননা, এক্ষেত্রে তিনি দেখতে পান মানুষের অকৃতজ্ঞ, হিংস্র মানসিকতা, নিষ্ঠুরতা, প্রেম-হৃদয়হীনতা, অমানবিক দৃষ্টিভঙ্গির পরিচয় ও কদর্যরূপ। কবিতায় সেসব দৃশ্য তিনি নির্মাণ করেন। কাব্যগ্রন্থটি একদিকে পৃথিবীর চলমান সময়ের জনমানবগোষ্ঠীর অসহায়ত্বের বেদনাবিধুর চালচিত্র অন্যদিকে সেই পৃথিবীতে বসবাসরত মানবেরই বিচিত্ররূপের এক অসাধারণ দলিল।

এছাড়া প্রবন্ধ বই ‘কথাসাহিত্য ও কবিতা: ভাবনার অন্তঃস্বর’ তেও ফুটে উঠেছে নানা দিক। বাংলা সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ দুই শাখা কথাসাহিত্য ও কবিতা। কথাসাহিত্যের আগমন আধুনিককালে আর কবিতার ইতিহাস বহুপুরাতন। সাহিত্যের এই দুই বিশেষ শাখায় আবার কথাসাহিত্যের সৃষ্টিমুখরতার চেয়ে কবিতার পাঠক ও সৃষ্টিধারা বেশি। গ্রন্থটিতে এ-দুইশাখার বিভিন্ন বিষয় ও চালচিত্র প্রাবন্ধিকের লিখনশৈলী ও আলোচনায় উঠে এসেছে।

গবেষণামূলক প্রবন্ধের কাজ হলো সাহিত্যের কোনো বিষয়ের ওপর, তথ্যের ওপরসত্য অনুসন্ধানের কষ্টকর চেষ্টা ও ভিন্নতর কোনো কিছু সৃষ্টির নবপ্রচেষ্টা। প্রাবন্ধিক সে বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক বলে প্রতীয়মান।গ্রন্থটিতে প্রাবন্ধিক বাংলাকথাসাহিত্য ও কবিতা সম্পর্কে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু প্রবন্ধের আলোচনা করেছেন। আলোচনায় একদিকে যেমন বাংলা কথাসাহিত্যের অজানা নানাদিক অপরদিকে বাংলা কবিতার অনালোচিত নানা বিষয় চমৎকারভাবে উপস্থাপনের প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা বিদ্যমান।

এ বিষয়ে বাকী বিল্লাহ বিকুল জানান, এবারের ২১ শে বইমেলা ২০২১ উপলক্ষে প্রকাশিত হয়েছে গ্রন্থদুটি। চ্যালেঞ্জ নেওয়াই যায়। বইয়ের প্রথম চালান ৬০০ কপি আমার বাসায় পৌঁছে গেছে। এসময় ঢাকা বাতিঘর, রকমারি, বিদিতসহ আজিজ সুপার মার্কেট এবং কুষ্টিয়ার লাইব্রেরিগুলোতে গ্রন্থদুটি পাওয়া যাবে বলেও জানান তিনি’।

উল্লেখ্য, বাকী বিল্লাহ বিকুলের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর ও টিএসসিসির পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার উল্লেখযোগ্য গ্রন্থসমূহের মধ্যে রয়েছে- কাব্য: মায়াবী উঠোন, হলুদ বসন্ত, খোকাকে খোলা চিঠি ও অন্যান্য কবিতা, খোঁপার গোলাপে প্রেম নেই ও নরক আমার বোন। প্রবন্ধগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে- বাংলা উপন্যাসে নদী সমাজ ও শ্রমজীবী মানুষ, বঙ্গবন্ধু মননে সৃজনে, অবিনাশী রবীন্দ্রনাথ, কথাসাহিত্যে নদীজীবন বহুকৌণিক দৃষ্টি। বহুসংখ্যক গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থও তিনি সম্পাদনা করেছেন। ছোটোগল্প রচনায়ও সমান পারদর্শী তিনি। বাংলাদেশের জাতীয় পত্রিকায় তাঁর নিয়মিত সাহিত্য, রাজনীতি ও সাম্প্রতিক বিষয়ের ওপর নানা লেখা প্রকাশিত হয়। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে তাঁর অনেক লেখাও ইতোমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে।