আওয়ামীলীগের ৭২ বছরে পদার্পন

  • 23 June
  • 02:54 PM

ভার্সিটি ভয়েস ডেস্ক( 23 June, 21

পরিবার থেকে যে সংগঠনের প্রতি ভালোবাসা অবুঝ বয়স থেকে শুরু হয়েছিল সেই সংগঠনের ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। অজপাড়াগাঁ থেকে শুরু করে মেট্রোপলিটন শহরে এই সংগঠনের নিবেদিত প্রাণ অসংখ্য। এই নিবেদিত প্রাণ মানুষগুলোর কাছে বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ হচ্ছে আবেগ ও অনুভূতির যায়গা।

নিজের স্বচক্ষে দেখা এবং কথা বলার সুযোগ হয়েছিলো এমন কয়েকজন নিবেদিত কর্মীর সাথে কথা বলে জেনেছি যাদের কাছে সংগঠন মানে কি?সংগঠন থেকে প্রাপ্তি কি?তাদের কিছুই বুঝেন না শুধু জানেন যে এটা শেখ সাহেবের সংগঠন, যেই সংগঠনের ডাকে আপামর জনতা এক হয়ে যুদ্ধে লিপ্ত হতে পারে।

বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের জন্মসূচনালগ্ন থেকেই প্রান্তিক খেটে খাওয়া মানুষের কল্যাণে কাজ করে আসছে, ক্ষুধায় জর্জরিত, নানাভাবে নিগৃহীত ও অবহেলিত এই জনপদের অধিকার আদায়ে যে সংগঠনের সর্বোচ্চ ত্যাগ রয়েছে তার নাম বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ।

৫২ এর ভাষা আন্দোলনে বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ এবং তার ভাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অবদান এই জনপদের প্রত্যেকের জানা রয়েছে।
৬৮ এর শিক্ষা আন্দোলন কিংবা ৬৯ এর গনঅভ্যুত্থান এবং ৭০ এর নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের অংশগ্রহন ও বিজয় কারো অজানা নয়।

এইবার যদি আসি ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ এর কথা বলতে তাহলে নিজের পরিবারের কথা লিখেই শেষ করতে পারবো না!থাক সে কথা! এখন দল ক্ষমতায় চারপাশে সবাই আওয়ামিলীগ! মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছিলো এই জনপদের আপামর জনতা।আওয়ামীলীগের ডাকে সেদিন বিজয় সূচিত হয়েছিল এবং নতুন একটা সার্বভৌম দেশের সৃষ্টি হয়ছিল যার নামকরণ হয় বাংলাদেশ নামক নামে।

প্রাকৃতিক দূর্যোগ বা মনুষ্যসৃষ্ট দূর্যোগ যেকোনো পরিস্থিতিতে সবার আগে এগিয়ে আসা সংগঠনের নাম বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ। বর্তমান সময়ে এই সংগঠনের সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যার নেতৃত্বে এই সংগঠন হয়ে উঠছে আরও সর্বজনস্বীকৃত গ্রহনযোগ্য ও পুষ্পমাল্য পাওয়ার মত অনেক অর্জনে সমৃদ্ধ এক রাজনৈতিক সংগঠন।


-
হাবিবুর রহমান সুমন
যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক
মাস্টারদা' সূর্যসেন হল ছাত্রলীগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়