• 11 May
  • 09:54 PM
আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইইই বিভাগের একাডেমিক কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি 11 May, 19

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের অধীনস্থ ইইই বিভাগের সকল ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম অর্নিদিষ্ট কালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ শনিবার ডিপার্টমেন্ট শিক্ষকদের এক জরুরি বৈঠকের পর শিক্ষকদের ক্লাস বর্জনের এ সিদ্ধান্ত নোটিশের মাধ্যমে জানানো হয়।
উক্ত নোটিশে একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধের জন্য বেশ কিছু কারণ উল্লেখ করা হয়। সভায় ক্লাস বর্জন ও একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধের জন্য একটি ছাত্র সংগঠনের একাংশ কর্তৃক নিজ ডিপার্টমেন্ট এর শিক্ষকদের ক্যাম্পাসে আসতে বাধা,হুমকি এবং ভূয়া নিউজ পোর্টালে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা কুৎসা রটানোর বিষয়টি উল্লেখ করা হয়। ঐ ছাত্র সংগঠনের একাংশ কিছু বিষয় অকৃতকার্য হওয়ায় শিক্ষকদের রুমের জানালার গ্লাস, নামফলক সহ ডিপার্টমেন্ট এর আসবাবপত্র ভাংচুর করে। শিক্ষকদের রুমে গিয়ে হেনস্থার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার ও ডিপার্টমেন্ট চেয়ারম্যানের সাথে অসদাচরণ ও পরীক্ষার হলে নকল সহ যাবতীয় অনিয়মের চাপ, স্টাফ ও অস্থায়ী শিক্ষকদের ডিপার্টমেন্ট এ না আসার হুমকি প্রদান করার বিষয়কে নোটিশে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া উক্ত ডিপার্টমেন্ট এর অষ্টম সেমিষ্টারের আবাসিক ছাত্রকে একই ডিপার্টমেন্ট এর ঐ ছাত্র সংগঠনের কিছু জুনিয়র ছাত্র কর্তৃক মারধর করে হাসপাতালে ভর্তির ব্যাপারে উত্তাল ছিল ইইই বিভাগের পরিবেশ। এই ঘটনার অভিযুক্তরা হলেন উক্ত বিভাগের মহিউদ্দিন চৌধুরি, শান্ত,আজহার তুষার ও রবিন। উক্ত বিভাগের শিক্ষকরা নিরাপওা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত সকল ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম থেকে নিজেদের বিরত রাখার সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
জানা যায়, ইদানিংকালে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বারবার অবহিতকরনের পরেও ও যথাযথ সহযোগিতা না পাওয়ায় ইইই ডিপার্টমেন্ট এর চেয়ারম্যান পদত্যাগে আগ্রহী বলেও জানা যায়। সম্প্রতি ডিপার্টমেন্ট ভাংচুর সহ যাবতীয় অনিয়মের পিছনে জুনিয়রদের নিয়মিত ইন্ধন দিয়ে যাচ্ছেন ঐ ছাত্র সংগঠনের মিফতাউল হাসান আনাস,আবদুল জাবের নাঈম,আরমান হোসেইন রণি এবং উচ্ছৃঙ্খল ছাত্রদের নিয়মিত সংগঠিত করে যাচ্ছেন অষ্টম সেমিষ্টারের ছাত্র আবু সাজেদ রকি। এ বিষয়ে বারবার অবহিত করা হলেও নীরবতা পালন করে আসছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।