• 21 June
  • 08:31 PM
চায়নায় স্টাডির ব্যাপারে কিছু মতামত!

এম এ মান্নান 21 June, 19

উন্নত বিশ্বের প্রায় সকল দেশই স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। ইউরোপের দেশগুলোতে ভালো মাপের স্কলারশিপ পেতে হলে IELTS এ ৬.৫ এর উপরে থাকলেই সাধারণত পাওয়া যায় তবে অধিকাংশ দেশেই পড়তে হয় নিজের টাকায় ; যা মধ্যবিত্ত পরিবারের স্বপ্নভঙ্গের অন্যতম কারন হয়ে দাড়ায়। কারো যদি ফ্যামিলির টাকার সমস্যা না থাকে তাহলে বলবো আপনারা ট্রাই করতে পারেন। তবে দেশের অধিকাংশ ভালো রিজাল্ট করা স্টুডেন্ট গুলো মধ্যবিত্ত পরিবারেরই হয়। তাই আমি এই পরিবারের পক্ষ হয়েই কথা বলবো এখন।

১. চায়না হলো বর্তমানে সবচেয়ে দ্রুত উন্নত হওয়া একটি দেশ। রপ্তানিতে প্রথম ও অর্থনৈতিক দিক থেকেও প্রথম হলেও শিক্ষার দিক থেকে প্রথম হতে পারেনি ; তাই এখন চায়নার সবচেয়ে বড় গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো এই শিক্ষাকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া। QS Ranking এ যেই বিশ্ববিদ্যালয় গুলো টপ ১০ এ অবস্থান করছে যেমন "ক্যালিফর্নিয়া, স্টেমফোর্ড, অক্সফোর্ড, হারভার্ট বিশ্ববিদ্যালয় " গুলো আজ শীর্ষে রয়েছে এগুলো এভাবেই হয়নি শত বছরের সাধনার ফল এখন তারা পাচ্ছে ; প্রথমদিকেই এই নামি-দামি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোও স্টুডেন্ট দের ফ্রী সার্ভিস দিয়ে থাকতো তারপর যখন বিভিন্ন দেশের স্টুডেন্ট রা তাদের গবেষণা, অাবিষ্কার দ্বারা যখন সবার উপরে নিয়ে গেছে এই বিশ্ববিদ্যালয় গুলো তখন তারা এই ফ্রী সার্ভিস বা স্কলারশিপ ( গন হারে চীনের মত) বন্ধ করে দেয় ; এখন স্টুডেন্ট রা নিজের টাকাতে পড়তে যাবে তা ও কত অযুহাত IELTS এ 7 না হলে এপ্লিকেশন করা যাবেনা, বাংলাদেশ এ ইউরোপে ভিসা দিবেনা, জি আর ই, টোফেল আর কত কি রিক্রোয়েন্টমেন্ট লাগে আল্লাহ ; এই এত প্যারার ভিতরে চীন অনায়াসে শত শত স্কলারশিপ দিয়ে যাচ্ছে অবিরত কিছুদিন পর এই চীন ও বন্ধ করে দিবে হয়তো যখন চীনের পেকিং, বেইজিং, শিচুয়ান, গুয়াংজু, ইউ এইচ টি QS Ranking এর টপ 10 এ প্রবেশ করবে ইতিমধ্যেই টপ 10 0 এ প্রবেশ করেছে চায়নীজ এই টপ বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

২. চায়নাতে বিভিন্ন কেটাগরিতে রিজাল্ট অনুযায়ী স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। আপনার রিজাল্ট যদি দুইটাই জি পি এ ৫ থাকে তাহলে অনার্সের জন্য ফুল গভর্নমেন্ট স্কলারশিপ মাসিক বৃত্তি দিয়ে থাকে আর মাস্টার্স এর জন্য বড় অংকের বৃত্তি দিয়ে থাকে( পাস করলে সবাই পায়)

৩. আর কিছু স্টুডেন্ট বলে চায়নার ভার্সিটি নাকি বাংলাদেশের ভার্সটির সমান। QS Ranking এ বাংলাদেশের মাত্র দুটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে ( ঢাবি ও বুয়েট) তাও ৮০১-১০০০ এর মধ্যে। আর অন্যকোন পাবলিক খুজে পাওয়া যায়নি এখানে প্রাইভেট ত দূরে থাক। চায়নার টপ বিশ্ববিদ্যালয় গুলো QS Ranking এ ১০০ এর ভেতর ; যেগুলোর স্বাভাবিক টিউশন ফি হলো 10-40 লাখ টাকা। চীন সরকার এই বিশাল এমাউন্টও স্কলারশিপ দিচ্ছে সাথে করে প্রতি মাসে বৃত্তি দিচ্ছে ;


৪. অনেকেই বলে চীন ভালোনা, চীনের সার্টিফিকেট কোন দাম নেই বাংলাদেশের। আমি জানি না তারা কোন জগতে বাস করে। যেখানে চীন এখন অর্থনৈতিকভাবে আমেরিকাকে পিছনে ফেলে দিয়েছে, রপ্তানিতে এক নাম্বরে আছে এই চীনকে নিয়ে এইসব মন্তব্য কেন। ওকে শুনোন আমাদের দেশের খবর ; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ চায়নিজ ল্যাংগুয়েজ এর উপর অনার্স চালু হয়েছে এখন আপনিই বলুন এই ডিপার্টমেন্ট চালাতে অবশ্যই চায়নিজ টিচার লাগবে এই টিচার আপনি পাবেন কোথায় ? চায়নার বেইজিং বিশ্ববিদ্যালয় এ এই চায়না ল্যাংগুয়েজ এর উপর অনার্স, মাস্টার্স ও পি এইচ ডি করায় সুতরাং ঢাবির টিচার হতে অবশ্যই চায়নার সার্টিফিকেট লাগবে ; তারপর একশ্রেনী বলবে শুধু নেগেটিভ কথাই বলবে শুনে রাখুন ওনারা কোনদিন ভালো কিছু করতে পারবেনা।
এ গেল ঢাবি এখন বলছি চায়নিজ কোম্পানি ব্যাপারে। শুনে রাখুন বাংলাদেশে শুধু চায়নিজ কোম্পানি ৪ হাজারের অধিক এই কোম্পানি গুলোতে দুভাষী হিসাবে নিয়োগ দিবে বাট কেনডিডেট ই নাই। তবে ল্যাংগুয়েজ এর জন্য চায়নাতে যাওয়াটা খুব জরুরি কারন ভাষা শিখার জন্য পরিবেশটা খুব জরুরি। সুতরাং চায়নাতে অনার্স শেষ করে কেউ বসে থাকবে এটা আমার মতে অকল্পনীয়।

আশা করি, দেশে হোক বা দেশের বাইরে হোক নিজের সেরাটা দিলে ,ইনশাআল্লাহ ভালো কিছু হবে।

M A Mannan
computer science and technology
jiangsu university science and technology
zhenjiang,china