• 30 July
  • 10:36 PM
বিশ্ব হেপাটাইটিস দিবস উপলক্ষে রমেকে ফ্রি স্ক্রিনিং প্রোগ্রাম

সাব্বির হাসান রাব্বি,রমেক প্রতিনিধি 30 July, 19

২৮ জুলাই বিশ্ব হেপাটাইটিস দিবস উপলক্ষ্যে "সন্ধানী রংপুর মেডিকেল কলেজ ইউনিট"এর আয়োজনে আগামী ১ সপ্তাহব্যাপী (২৮জুলাই থেকে ২ আগস্ট পর্যন্ত) নন মেডিকেল ব্যক্তিদের জন্য ৫০% মূল্য হ্রাসে এবং মেডিকেল ছাত্র ছাত্রীদের জন্য সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে হেপাটাইটিস -বি স্ক্রিনিং করা হচ্ছে।।স্ক্রিনিং এর মাধ্যমে জেনে নিন আপনার শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি আছে কি না?
যদি না থাকে তাহলে ভ্যাক্সিন নিন এবং নিজেকে সুরক্ষিত রাখুন আর ভাইরাস এর উপস্থিতি পাওয়া গেলে দ্রুত চিকিৎসা গ্রহণ শুরু করুন।

যোগাযোগ করুন-
সন্ধানী,রংপুর মেডিকেল কলেজ ইউনিট
হাসপাতাল ভবন,৩য় তলা,মধ্যম ব্লক
ফোন নং- ০৫২১-৬৫১৮০

হেপাটাইটিস বলতে কি বোঝায়?

মূলত হেপাটাইটিস বলতে লিভার ফুলে যাওয়াকে বোঝায়। এর ফলে দেখা যায় লিভার ইনফেকশন, সঙ্গে ইমিউন সিস্টেম এর অবনতি এবং এক পর্যায়ে অকার্যকর হয়ে পরে লিভার। ভাইরাস এর কারনের হয় বলে একে ভাইরাল হেপাটাইটিস ও বলে। হেপাটাইটিস ৫ টি ভাইরাস দ্বারা হয়ে থাকে। ভাইরাস গুলো হচ্ছে, হেপাটাইটিস-এ, হেপাটাইটিস-বি, হেপাটাইটিস-সি, হেপাটাইটিস-ডি, হেপাটাইটিস-ই।

কীভাবে ছড়ায়?

এই রোগ বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়ায়। তবে সব থেকে মারাত্মক বিষয় হল, ক্রনিক হেপাটাইটিস বি তে আক্রান্ত রোগীরা খুব দ্রুত এরা ভাইরাস সংক্রমন করতে পারে।
- রক্ত সঞ্চালন এর সময় রক্তদানকারীর রক্তে এই ভাইরাস থাকলে তা গ্রহন কারীর শরীরে ঢুঁকে পড়ে।
- একাধিক ইনজেকশন ব্যবহার করলে।
- আক্রান্ত রোগীর ব‍্যবহৃত সূচ, ডাক্তারী যন্ত্রপাতি সুস্থ ব্যক্তির দেহে ব্যবহার করলে।
- জৈবিক মিলনের সময় প্রতিরোধ ব্যবস্থা না নিলে।
- মানুষের লালা, প্রসাব, শুক্রাণু ও যৌন রোগের মাধ্যমে এ ভাইরাস ছড়ায়।
- মায়ের দেহে এই ভাইরাস থাকলে নবজাতের দেহে ও তা ছড়িয়ে পড়তে পারে।
তবে মনে রাখতে হবে, স্তনদান করলে, হাত মিলালে কিংবা পানি বা খাবার খাওয়ার মাধ্যমে এই ভাইরাস ছড়ায়না। রোগীর ব্যবহার করা চশমা, জামা-কাপড় ইত্যাদি এর মাধ্যমে ও ছড়ায় না।

লক্ষণ সমূহ:

ভাইরাস আক্রমণের প্রায় ১-৩ মাসের মধ্যে লক্ষণ গুলো দেখা দিতে পারে,
- লিভারে ব্যথা করা
- খাদ্যে অরুচি
- দুর্বলতা (কয়েক সপ্তাহ স্থায়ী হয়)
- জ্বর ও বমি
- পেট ব্যথা
- শরীর চুলকানো ( এটি সকল হেপাটাইটিস রোগের লক্ষণ)
- জন্ডিস
- প্রসাব হলুদ হয়ে যাওয়া
- পায়খানার রঙ ধূসর হবে
- রক্তস্বল্পতা
- ওজন কমে যাওয়া

প্রতিরোধের উপায় সমূহ:

যেকোনো রোগ চিকিৎসা করার থেকে প্রতিরোধ করা উত্তম। হেপাটাইটিস বি প্রতিরোধের জন্য রয়েছে ভ্যাকসিন। যা ৪ টি ডোজ এর মাধ্যমে।

টিকার_সময়সূচী :
১.প্রথমটি যে কোন দিন।
২.দ্বিতীয়টি প্রথমটির ১মাস পর।
৩.তৃতীয়টি প্রথমটির ২মাস পর।
৪.বুস্টার ডোজ প্রথমটির ১২ মাস পর।

ভ্যাক্সিন নিন,সুরক্ষিত থাকুন।